এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > নতুন কমিটি গঠনের পরেও মিটছে না দ্বন্দ্ব! দুই হেভিওয়েট নেতার গন্ডগোল মেটাতে পদক্ষেপ তৃণমূলের!

নতুন কমিটি গঠনের পরেও মিটছে না দ্বন্দ্ব! দুই হেভিওয়েট নেতার গন্ডগোল মেটাতে পদক্ষেপ তৃণমূলের!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে কিছুদিন আগেই তৃণমূলের বিভিন্ন জেলার কমিটি নতুন করে গঠন করা হয়েছে। যেখানে দক্ষ সাংগঠনিক মুখকে সামনে এনে সংগঠনকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করেছে শাসক দল। কিন্তু তারপরেও তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্ব মিটছে না কিছুতেই। আর তাই এবারে দলের সেই দ্বন্দ মেটাতে উদ্যোগী হয়েছে ঘাসফুল শিবির। সূত্রের খবর, শনিবার ক্যামাকস্ট্রিটে উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান এবং জেলা সভাপতিকে ডেকে পাঠিয়েছে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব।

কিছু সমস্যা সমাধানের জন্য জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান এবং সভাপতিকে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব ডেকে পাঠালেও, তার আগে এই দুই নেতার মধ্যে দ্বন্দ্ব অব্যাহত থাকতে দেখা যাচ্ছে। যার ফলে আলোচনায় বসার আগে যদি দুই নেতার মধ্যে দ্বন্দ্ব এইভাবে প্রকাশ্যে চলে আসে, তাহলে আলোচনায় বসে আদৌ লাভ হবে কিনা, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়।

কিন্তু ঠিক কী কী বিষয় নিয়ে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান এবং সভাপতির মধ্যে দ্বন্দ্ব? জানা গেছে, ইসলামপুর, কালিয়াগঞ্জ এবং রায়গঞ্জে তৃণমূলের ব্লক এবং টাউন কমিটির সভাপতির নাম নিয়ে ব্যাপক মতানৈক্য রয়েছে। জেলা সভাপতি কানাইলাল আগরওয়ালের সঙ্গে এই ব্যাপারে দুই বিধায়কের দ্বন্দ্ব অব্যাহত।

এদিন এই প্রসঙ্গে প্রাক্তন জেলা সভাপতি তথা বর্তমান উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান অমল আচার্য বলেন, “দলের ব্লক এবং টাউন সভাপতির নাম নিয়ে জেলা সভাপতির সঙ্গে আমার কয়েকটি জায়গায় মতের মিল হয়নি। ইসলামপুরের বিধায়ক করিমদা আছেন। তার মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া উচিত ছিল। তাই আমি জেলা সভাপতিকে বলেছিলাম, টাউন কমিটির সভাপতি আপনি নির্বাচন করুন। করিম সাহেব নিজের এলাকার ব্লক সভাপতিকে বেছে নিক। কিন্তু কানাইয়াবাবু তা করেননি। আবার কালিয়াগঞ্জের বিধায়ক তপন দেব সিংহ ব্লক ও টাউন সভাপতির জন্য যাদের নাম প্রস্তাব করেছিলেন, তাদের কানাইয়াবাবু মেনে নেয়নি। সামনে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে সমস্ত বিধায়কদের মতামতকে গুরুত্ব দিতে হবে। তাই তারা তাদের তাদের মতামত জানিয়ে আমাকে চিঠি পাঠিয়েছেন। সেই চিঠি আমি রাজ্যে পাঠিয়ে দিয়েছি। সমস্ত রিপোর্ট আমি সুব্রত বক্সী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছি।”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান অমল আচার্য জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে এই বিষয় নিয়ে সরব হলেও তাকে মানতে নারাজ জেলা তৃণমূল সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল। এদিন তিনি বলেন, “এই বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই। কারও সঙ্গে আমার কোনো মতানৈক্য নেই।”

তবে কানাইলাল আগরওয়াল যে কথাই বলুন না কেন, গোটা পরিস্থিতি যে তার প্রতিকূলে যেতে শুরু করেছে, তা জেলা চেয়ারম্যানের কথা থেকেই স্পষ্ট। এতদিন উত্তর দিনাজপুর জেলায় কানাইলাল আগরওয়ালের বিরুদ্ধে সবথেকে বেশি সরব হতে দেখা যেত বিধায়ক আব্দুল করিম চৌধুরীকে। কিন্তু এবার যেভাবে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান এই বিষয় নিয়ে জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে সরব হলেন, তাতে কানাইলাল আগরওয়াল কিছুটা হলেও কোণঠাসা হয়ে পড়লেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে গোটা পরিস্থিতি নিয়ে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে দুই নেতাকে নিয়ে বৈঠকের পর সমস্যার সমাধান হয় কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!