এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ‘মধুর অভিজ্ঞতায়’ মনোনয়ন প্রত্যাহার, তাই নিজেরাই দেওয়াল লিখন মুচছেন বিজেপি প্রার্থীরা

‘মধুর অভিজ্ঞতায়’ মনোনয়ন প্রত্যাহার, তাই নিজেরাই দেওয়াল লিখন মুচছেন বিজেপি প্রার্থীরা



বেজায় আত্ম বিশ্বাসের সাথে মনোনয়নপত্র পেশ করেও তা প্রত্যাহার করে নিলেন বিজেপি প্রার্থী। এমনকি এখন তাঁকে নিজের নির্বাচনী প্রচারকার্যে দেওয়াল লিখনও সাফাই করার কাজে হাত লাগাতে হয়েছে। ঘটনাটি বীরভূম জেলার রাজনগর ব্লকের তাঁতিপাড়ায়। উল্লেখ্য এই এলাকাতেই মাত্র চার মাস আগে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের পৌরহিত্যে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন তৃণমূলের নির্বাচিত জেলা পরিষদ সদস্য অনুপ গড়াই সহ ৫০০ জন তৃণমূল কংগ্রেস দলীয় কর্মী সমর্থক। এরপরে ৪২টি আসন বিশিষ্ট বীরভূম জেলা পরিষদে মাত্র ১টি আসনে মনোনয়নপত্র পেশ করেছিলেন তাঁতিপাড়ার চিত্রলেখা রায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু অল্প কদিনের মধ্যেই তিনি তা প্রত্যাহার করে নেন। গ্রাম পঞ্চায়েত ও পঞ্চায়েত সমিতিতে মনোনয়নপত্র পেশ করেও যে ৮ জন বিজেপি প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন ,তাঁরা হলেন গ্রাম পঞ্চায়েত স্তরে অনুপ গড়াই, মধু দাস, সাগর বাউড়ি, রিকু বাউড়ি এবং পঞ্চায়েত সমিতিস্তরে নরেন সাহা, অমৃত দাস, চন্দনা বাগচি প্রমুখ। এদিন চিত্রলেখা দেবী বললেন, ” কোনও বাধা নয়, আমরা স্বেচ্ছাতেই মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছি। এখন দেওয়াল লিখন মোছার কাজ করছি।” অবশ্য শাসকদলের রাজনগরের ব্লক সভাপতি সুকুমার সাধু দাবি করে বললেন, ”আমরা কোনওরকম বাধা দিইনি। সংগঠনবিহীন দল প্রচারে বেরিয়েছিল। নিজেদের লজ্জায় ওরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছে।” তবে এলাকায় জনশ্রুতি শাসকের তীব্র সন্ত্রাসের জেরেই প্রার্থীপদে মনোনয়ন জমা দিয়েও শেষ পর্যন্ত তা প্রত্যাহার করে নিতে বাধ্য হয়েছেন বিজেপির প্রার্থীরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!