এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > নোয়াপাড়ায় তৃণমূলকে ‘সুবিধা’ করে দিচ্ছে সিপিএম, সামনে এল বিস্ফোরক অভিযোগ

নোয়াপাড়ায় তৃণমূলকে ‘সুবিধা’ করে দিচ্ছে সিপিএম, সামনে এল বিস্ফোরক অভিযোগ



নোয়াপাড়া উপনির্বাচনের দিন যত এগিয়ে আসছে ততই চড়ছে রাজনৈতিক পারদ। নোয়াপাড়াতে উপনির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে যেতেই সেখানে প্রার্থী ঘোষণা করে দিয়েছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস ও বামফ্রন্ট। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন স্থানীয় গাড়ুলিয়া পুরসভার চেয়ারম্যান সুনীল সিং, অন্যদিকে বামফ্রন্টের প্রার্থী হয়েছেন সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য গার্গী চট্টোপাধ্যায়। একটু দেরিতে হলেও প্রার্থী ঘোষণা করেছে কংগ্রেসও। তৃণমূলের পথে হেঁটেই কংগ্রেস প্রার্থী করেছে গাড়ুলিয়া পুরসভার চার নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গৌতম বসুকে। আর প্রার্থী হয়েই বিস্ফোরক ভাবে মুখ খুলেছেন গৌতমবাবু।
গৌতমবাবুর অভিযোগ, ২০১৬ সালে আমরা জিতেছিলাম, এবারেও আমরাই জিতব। কংগ্রেসের প্রতি মানুষের আস্থা রয়েছে। মধুসূদন বাবুর আদর্শ নিয়েই আমরা জনগণের কাছে ভোট চাইব। কংগ্রেসের জেতা আসনটা যাতে আমাদেরই থাকে সেই কারণে আমরা জোট করেই কংগ্রেস প্রার্থী দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু, সিপিএম সেটা শোনেনি। তৃণমূলকে সুবিধা করে দিতেই আলাদা করে প্রার্থী ঘোষণা করেছে বামফ্রন্ট। নোয়াপাড়ার মানুষ কংগ্রেসের পাশেই থাকবে। সুনীল সিং এবং তৃণমূলের প্রতি মানুষের আস্থা নেই। এখানে বিজেপির কোনও সংগঠন নেই। ভোটের সময় শুধু বিজেপিকে দেখা যায়। প্রসঙ্গত, ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী মঞ্জু বসুকে ১,০৯৫ ভোটে হারিয়েছিলেন বাম সমর্থিত কংগ্রেস প্রার্থী মধুসূদন ঘোষ। কিন্তু গত বছর অগস্ট মাসে লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন তিনি আর তাই এই আসনে আসন্ন উপনির্বাচন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!