এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > নন্দীগ্রামে মমতার ঘোষণার পরই রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর! বাড়ছে জল্পনা

নন্দীগ্রামে মমতার ঘোষণার পরই রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর! বাড়ছে জল্পনা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – ধীরে ধীরে খেলা এবার জমে উঠতে শুরু করেছে। অনেকেই বলছেন, শীতকালের মরসুমে সোমবার ছিল সব থেকে বড় উত্তপ্ত দিন। অন্তত রাজনৈতিক ক্ষেত্রে যে তা এই শীতের মুহূর্তেও বিশেষজ্ঞদের অত্যন্ত ঘামিয়ে তুলেছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কেননা আজ নন্দীগ্রামে সভা থেকে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে সেখানে তিনি লড়াই করবেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপর থেকেই নন্দীগ্রামের ভূতপূর্ব বিধায়ক তথা সদ্য বিজেপিতে যোগদানকারী শুভেন্দু অধিকারী কি করবেন, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে জল্পনা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেখানে নন্দীগ্রামে দাঁড়াচ্ছেন, সেখানে তার পাল্টা বিজেপির পক্ষ থেকে কি শুভেন্দু অধিকারী লড়াই করবেন, তা নিয়ে সকলেই তাকিয়ে ছিলেন শুভেন্দু অধিকারীর বিবৃতির দিকে। অবশেষে এই ব্যাপারে মুখ খুললেন শুভেন্দু অধিকারী।

সূত্রের খবর, এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন নন্দীগ্রামে সভা করছেন, ঠিক তখনই দক্ষিণ কলকাতায় সভা করার উদ্যোগ নেয় ভারতীয় জনতা পার্টি। যেখানে রাসবিহারীতে পদযাত্রা করে একটি সভা করেন শুভেন্দু অধিকারী। আর সেখানেই এই ব্যাপারে বক্তব্য রাখতে দেখা যায় তাকে। যেখানে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাঁড়ালে তাকে হাফ লক্ষ্য ভোটে হারাতে না পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার কথা শুনিয়ে দিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “নন্দীগ্রামে আধ লক্ষ ভোট মমতাকে হারাতে না পারলে আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব।” স্বাভাবিকভাবেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের পাল্টা মন্তব্য করে শুভেন্দু অধিকারী যে রীতিমত জমিয়ে দিলেন বঙ্গ রাজনীতি, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামে দাঁড়াবেন বলে মন্তব্য করার পরেই নানা মহলে জল্পনা তৈরি হয়েছিল‌। অনেকেই বলতে শুরু করেছিলেন, যদি শুভেন্দু অধিকারী এবার নন্দীগ্রামে না দাঁড়ান, তাহলে তিনি পালিয়ে যাচ্ছেন বলে সকলে দাবি করতে শুরু করবে। সেদিক থেকে শুভেন্দু অধিকারী এই ব্যাপারে কি বলেন, তার দিকেই নজর ছিল সকলের। তবে তিনি যে বিন্দুমাত্র জায়গা ছাড়তে নারাজ, তা রাসবিহারীর সভা থেকে বুঝিয়ে দিলেন সদ্য তৃণমূল ত্যাগী হেভিওয়েট এই বিজেপি নেতা। যেখানে নিজের প্রাক্তন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরাজিত করার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন তিনি।

পাশাপাশি যদি তিনি এই কাজ করতে না পারেন, তাহলে রাজনীতি ছেড়ে দেওয়ার কথাও শোনা গেল শুভেন্দু অধিকারীর গলায়। তবে কি হবে, তা ভোটবাক্স খোলার পরই স্পষ্ট হয়ে যাবে। কিন্তু তার আগে গুরু এবং শিষ্যের এই লড়াই কোন আকার ধারণ করে, শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় গোটা পরিস্থিতি, নন্দীগ্রাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নাকি শুভেন্দু অধিকারী হাতে থাকে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!