এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদরে মুড়তে চলেছে একুশের ভোট! লক্ষ লক্ষ পিপিই কিট-গ্লাভসের মহাপরিকল্পনা

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদরে মুড়তে চলেছে একুশের ভোট! লক্ষ লক্ষ পিপিই কিট-গ্লাভসের মহাপরিকল্পনা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – সামনেই মহাযুদ্ধ। 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে জোরদার টক্কর হবে, তা বলাই বাহুল্য। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নিজেদের মত করে প্রচার করতে শুরু করেছে। বিরোধীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে, রাজ্যে প্রচুর পরিমাণে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করতে হবে। কেননা রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবস্থা খুব একটা ভালো নয়‌। যদিও বা তৃণমূলের পক্ষ থেকে সেই অভিযোগ বারেবারে নস্যাৎ করা হয়েছে।

আর এই পরিস্থিতিতে নির্বাচন কমিশন অবশ্য কোনো অবস্থাতেই খামতি রাখতে চাইছে না। তাই বিধানসভা নির্বাচনে মালদহ জেলার প্রায় 15 লক্ষ গ্লাভস এবং সাড়ে চার হাজার পিপিই কিটের ব্যবস্থা করতে চলেছে নির্বাচন দপ্তর। মূলত করোনা পরিস্থিতির মধ্যে এই নির্বাচন হলে যাতে কারো স্বাস্থ্যের কোনোরকম ক্ষতি না হয়, তার জন্য কমিশনের পক্ষ থেকে এই রকম উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই বিহার বিধানসভার নির্বাচন হয়েছিল। যেখানে করোনাকে সামাল দিতে অজস্র পদ্ধতি পালন করা হয়েছিল। সেই মত করেই পশ্চিমবঙ্গে এখনও পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও, প্রতিনিয়ত আক্রান্ত হতে দেখা যাচ্ছে। তাই নির্বাচনের সময় যাতে কোনোভাবে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি না পায়, তার জন্য অতিরিক্ত বুথের সংখ্যা যেমন বৃদ্ধি করা হচ্ছে, ঠিক তেমনই পিপিই কিট থেকে শুরু করে গ্লাভসের ব্যবস্থা করছে কমিশন।

জানা গেছে, প্রতিটি বুথের দায়িত্বে চারজন করে কর্মী থাকছেন। যার মধ্যে একজন প্রিসাইডিং অফিসার এবং পোলিং অফিসার প্রতিটি বুথে নির্বাচন পরিচালনা করবেন। শুধু তাই নয়, প্রতি বুথে একজন করে কর্মীর জন্য পিপিই কিটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। যার ফলে মালদহ জেলায় মোট বুথের হিসাবে প্রায় সাড়ে চার হাজার পিপিই কিটের বন্দোবস্ত করতে হবে নির্বাচন দপ্তরকে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কমিশনের হিসাব অনুযায়ী, মালদহ এবার ভোটার সংখ্যা প্রায় 29 লক্ষ 96 হাজার 950 জন। তাই প্রত্যেক ভোটার যাতে ইভিএমের বোতামে হাত দিতে গিয়ে কোনোভাবেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হন, তার জন্য প্রত্যেককে দেওয়া হবে গ্লাভস। সেদিক থেকে প্রায় 15 লক্ষ জোড়া গ্লাভসের ব্যবস্থা করতে হবে কমিশনকে। বিশ্লেষকরা বলছেন, নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে কোনরকম খামতি রাখা হবে না এবারের নির্বাচনে। একেই বিধানসভা নির্বাচনে বাড়তি নিরাপত্তা মোতায়েন করা হয়। তার মধ্যে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই নির্বাচন হওয়াতে অনেকটাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমস্ত কাজকর্ম করতে চাইছে কমিশন।

এদিন এই প্রসঙ্গে মালদহের অতিরিক্ত জেলা শাসক বৈভব চৌধুরী বলেন, “নির্বাচনে ভোট কর্মীরা অংশ নেবেন। তাদের সুরক্ষার জন্য প্রতি বুথে বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হবে। যে ভোট কর্মীদের সরাসরি সংস্পর্শ আসবেন, তার জন্য থাকবে একটি পূর্ণাঙ্গ পার্সোনাল প্রটেকশন কিট। দায়িত্বপ্রাপ্ত ভোট কর্মীদের দেওয়া হবে মাস্ক এবং গ্লাভস। বাকি ভোটারদের জন্য পৃথক পৃথক গ্লাভসের ব্যবস্থা থাকবে।” সব মিলিয়ে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে নির্বাচন হওয়াতে কোনোভাবেই খামতি রাখতে চাইছে না কমিশন। তাই নির্বাচন পরিস্থিতি যেমন সুষ্ঠুভাবে পালন করতে তৎপর তারা, ঠিক তেমনই করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলাতে নেওয়া হচ্ছে সব রকম ব্যবস্থা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!