এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > নির্বাচনী লড়াই নয়, এবার এক অন্য যুদ্ধে নামছে তৃণমূল এবং বিজেপি, জেনে নিন!

নির্বাচনী লড়াই নয়, এবার এক অন্য যুদ্ধে নামছে তৃণমূল এবং বিজেপি, জেনে নিন!



নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন যেদিন থেকে লাগু হয়েছে, ঠিক সেদিন থেকেই তার চরম বিরোধিতা করতে শুরু করেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। ইতিমধ্যেই পদযাত্রা, সভা-সমিতির মধ্যে দিয়ে এই আইনের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষের জনমত এক জায়গায় করছেন ঘাসফুল শিবিরের নেতারা। অন্যদিকে এনআরসি যাতে তাদের সাফল্যের ক্ষেত্রে কাটা হয়ে দাঁড়াতে না পারে, তার জন্য পাল্টা প্রস্তুতি শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। বলাই বাহুল্য, তৃণমূল এই এনআরসির বিরুদ্ধে প্রচার করে, গত লোকসভায় বিজেপির যে উত্থান উত্তরবঙ্গে ছিল, তার থেকে অনেকটাই বিজেপিকে পেছনের দিকে ফেলে দিয়েছে।

কিন্তু সামনেই পৌরসভা নির্বাচন। তাই একদিকে তৃণমূল, আর অন্যদিকে বিজেপি এখন লিফলেট যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ল। জানা গেছে, তুফানগঞ্জে পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতিমধ্যেই তৃণমূল এনআরসির বিরুদ্ধে এবং বিজেপির বিরুদ্ধে লিফলেট নিয়ে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। একইভাবে বিজেপিও লিফলেটকে হাতিয়ার করে শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ঘুরে এনআরসি সুফল তুলে ধরছে। আর তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যেকার রাজনৈতিক যুদ্ধ অপেক্ষা, এনআরসি স্বপক্ষে ও বিপক্ষে থাকা লিফলেট যুদ্ধ এখন রীতিমত জমজমাট করে তুলেছে তুফানগঞ্জের রাজনীতিকে।

কোন পক্ষ এগিয়ে, আর কোন পক্ষ পিছিয়ে, এখন তা রীতিমত চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে তুফানগঞ্জ শহরে। এদিকে এই প্রসঙ্গে তুফানগঞ্জ টাউন ব্লক কমিটির তৃণমূলের আহ্বায়ক শিবপদ পাল বলেন, “কেন এনআরসি, সিএএ নয়, তামরা পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে সভা করে বাসিন্দাদের বোঝাচ্ছি। শহরের কুড়িটি ওয়ার্ডে কুড়ি হাজার লিফলেট বিলির টার্গেট নিয়েছি।” অন্যদিকে শুধু এনআরসির বিরুদ্ধে নয়, এতদিন তৃণমূল শহরের উন্নয়নে কি কি কাজ করেছে, তাও পথসভা করে সাধারন মানুষদের জানানো হচ্ছে বলে জানান তুফানগঞ্জ পৌরসভার 5 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর অম্লান বর্মা।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিকে তৃণমূলের এই প্রচারকে গুরুত্ব দিতে নারাজ ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে তুফানগঞ্জ শহর মন্ডলের বিজেপির সভাপতি রিপন পাল বলেন, “আমরাই সিএএ নিয়ে বাসিন্দাদের কাছে প্রথমে গিয়েছি। এখন ওরা এর বিরোধিতা করে লিফলেট ছাপিয়ে বিলি করে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। ভোটাররা সচেতন। সব জেনে বুঝেই ভোটবাক্সে তারা এর জবাব দেবেন। পৌরসভা পরিচালনায় তৃণমূল কি অনিয়ম করেছে, সেটাও বাসিন্দাদের জানাচ্ছি।” একইভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হয়ে যুব মোর্চার শহর মন্ডলের বিজেপির সভাপতি প্রসেনজিৎ বসাক বলেন, “তৃণমূল সিএএ নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে।

কিন্তু বাসিন্দারা আমাদের এবং ওদের লিফলেট পাশাপাশি নিয়ে বসে তার বিচার করছেন। এর সুফল আমরা পৌরসভা ভোটের ঘরে তুলবই।” বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তুফানগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে রাজনৈতিক অন্যান্য ইস্যু অপেক্ষা সবথেকে বেশি দুই দলের মধ্যে লড়াই হবে, এই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে। তাই এখন থেকেই দুই দল নিজেদের মতো করে লিফলেটের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছে নিজেদের মত পৌছে দিতে চাইছে। তবে ভোটবাক্সে এনআরসির পক্ষে, নাকি এনআরসির বিপক্ষে মানুষ বেশি মত পোষণ করেন, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!