এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নিজামুদ্দিনের যোগ দেওয়া ব্যক্তিদের খোঁজ পেতে এবার বড়সড় পদক্ষেপ নিলো পুলিশ ! জেনে নিন!

নিজামুদ্দিনের যোগ দেওয়া ব্যক্তিদের খোঁজ পেতে এবার বড়সড় পদক্ষেপ নিলো পুলিশ ! জেনে নিন!



অনেকে বলেন, অর্থ যেমন অনর্থের কারন। আবার অনেকে বলেন, এই অর্থের ফলে সুদিন আসে। তবে সবক্ষেত্রেই যে সুদিন ধন, সম্পদের দিক থেকে আসবে, তা নয়। দেশের সুরক্ষার দিক থেকেও অর্থের প্রলোভন দেখিয়ে যে সুদিন আনা যায়, তার জন্য এবার উদ্যোগ নিল পুলিশ। কমবেশি প্রায় প্রত্যেকেরই জানা, গোটা বিশ্ব এখন করোনা ভয়াবহতায় ভীত হয়ে রয়েছে। ভারতবর্ষও তার ব্যতিক্রম নয়।

কিন্তু এই করোনা ভাইরাসকে আটকাতে ভারতবর্ষের লকডাউনের সময়কালে ঘটে যায় এক বিপত্তির ঘটনা। যেখানে বারবার জমায়েত বা অনুষ্ঠান বন্ধ করার কথা বলা হলেও, সেই নির্দেশকে উপেক্ষা করে কিছু মানুষকে দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিগি জামাতের বিশাল ধর্মীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হতে দেখা যায়। যেখানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রচুর মানুষ আসেন। আর এই জমায়েত প্রবল বিড়ম্বনা বাড়িয়ে দেয় গোটা দেশের‌।

দেখা যায়, এই জমায়েত থেকেই বিভিন্ন জায়গায় এই জমায়েতে অংশগ্রহণকারীরা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ার সাথে সাথেই করোনা সংক্রমনের সংখ্যা বাড়তে থাকে ভারতবর্ষে। অভিযোগ, বেশ কিছু ক্ষেত্রে এই সমাবেশে যাওয়া ব্যক্তিরা এখনও পর্যন্ত ঘাপটি মেরে লুকিয়ে আছেন। অর্থাৎ তারা প্রশাসনের কাছে হাজিরা না দিয়ে বা চিকিৎসা না করিয়ে নানা জনের সাথে মিশতে শুরু করেছেন। যার ফলে ভারতবর্ষে করোনা পরিস্থিতি চরম আকার নিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই এমতাবস্থায় অর্থের সাহায্য নিয়েই এই গোটা ব্যাপারটিকে মোকাবিলা করতে চাইছে প্রশাসন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, এবার লুকিয়ে থাকা জামাত সদস্যদের খোঁজ খবর পেতে যারা তাদের খোঁজ দেবে, তাদের 10000 টাকা আর্থিক পুরস্কার দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করল কানপুর পুলিশ। অর্থাৎ প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই উদ্যোগ নিয়ে সেই এলাকায় যাতে জমায়েত থেকে ফেরা মানুষদের সংক্রমণ অন্য কারও মধ্যে ছড়িয়ে না যায়, তার জন্যই এই পদক্ষেপ নেওয়া হল বলে মনে করছে একাংশ।

এদিন এই প্রসঙ্গে কানপুর রেঞ্জের ইন্সপেক্টর জেনারেল মোহিত আগরওয়াল বলেন, “এখনও ওরা যদি নিজে থেকে এসে পুলিশের সঙ্গে সহযোগিতা করেন, তাও ভাল। নইলে কড়া শাস্তিমুলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। আত্মগোপন করে থাকা তাবলিগি জামাত সদস্যদের খবর পুলিশকে দিলে দশ হাজার টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে। পাশাপাশি যারা খবর দেবে, তাদের পরিচয় গোপন রাখা হবে।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বারবার প্রতিটি কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই জমায়েত থেকে ফেরা মানুষদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়ে বলা হয়েছে, আপনারা আত্মসমর্পণ করুন এবং চিকিৎসা করান। কিন্তু তা সত্ত্বেও এই জমায়েতে অংশ নেওয়া কিছু মানুষ এখনও পর্যন্ত নিজের মতো করে ঘুরে বেড়াতে শুরু করেছেন। যার ফলে ভারতবর্ষে করোনা সংক্রমণের প্রভাব বৃদ্ধির প্রবল আশঙ্কা করছেন।

আর এই পরিস্থিতিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার বার্তা দেওয়া সত্ত্বেও অনেকেই এখনও পর্যন্ত ধরা দেয়নি। তাই আতঙ্ক এবং সংক্রমণ থেকে বাঁচতে কানপুর পুলিশের পক্ষ থেকে এই সমস্ত ব্যক্তিদের খোঁজ দিলে আর্থিক পুরস্কার দেওয়া হবে ঘোষণা করায় অনেকটাই সুফল মিলবে বলে আশা করা হচ্ছে। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!