এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শাসকদলের ‘দাপুটে’ নেতার বিজেপি যাত্রা আটকাতেই কি ‘বলি’ ভারতী ঘোষ? জল্পনা তুঙ্গে

শাসকদলের ‘দাপুটে’ নেতার বিজেপি যাত্রা আটকাতেই কি ‘বলি’ ভারতী ঘোষ? জল্পনা তুঙ্গে



মুখ্যমন্ত্রীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষের হঠাৎ করে কম গুরুত্ত্বপূর্ন পদে বদলি, তার পরিপ্রেক্ষিতে তাঁর চাকরি থেকেই ইস্তফা আর সর্বোপরি তাঁর উপরে ‘অদা-জল খেয়ে’ সিআইডি তদন্ত হওয়ায় রাজ্য-রাজনীতিতে জল্পনার অন্ত নেই। হঠাৎ করে কি হল, যে একদিন যে ভারতী ঘোষ প্রকাশ্য সভামঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘জঙ্গলমহলের মা’ বলে সম্বোধন করেছিলেন, তার সঙ্গেই রাজ্য সরকারের এইরকম সম্পর্কের অবনতি হয়ে গেল? এই নিয়ে সরাসরি কেউ মুখ না খুললেও, শাসকদলের একাধিক শীর্ষনেতা আকারে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে ভারতীদেবী বিরোধীদের সঙ্গে, বিশেষ করে বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে শাসকদলকে সবং উপনির্বাচনে হারানোর চক্রান্ত করেছিলেন বলেই তাঁর উপর এই ‘কোপ’।

কিন্তু কলকাতার এক নামী ওয়েব পোর্টালের প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে যে, আসল ঘটনা ‘অন্য’। ওই ওয়েব পোর্টালের দাবী, ভারতীদেবীর ‘ঘনিষ্ঠ’ এক ব্যক্তি তাঁদের জানিয়েছেন, পূর্ব মেদিনীপুরের শাসকদলের এক ‘দাপুটে’ নেতা পূর্ব মেদিনীপুরের বাইরে বেরিয়ে এবার পার্শ্ববর্তী পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে প্রভাব বিস্তার করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর ‘স্নেহধন্য’ ভারতী ঘোষ সেখানে থাকায় তা কার্যত অসম্ভব হয়ে পড়ছিল। ওই পোর্টালের খবর থেকেই আরো জানা যাচ্ছে, ভারতীদেবীর ওই ‘ঘনিষ্ঠ’ ব্যক্তি আরও জানিয়েছেন যে ভারতীদেবী মনে করেন, শাসকদলের সেই দাপুটে নেতার কথা শোনা না হলে (তাঁর মত করে পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে প্রভাব বিস্তার) তিনি নাকি যে কোনও দিন সদলবলে বিজেপিতে যোগদান করতে পারতেন। যেহেতু ভারতীদেবীর জন্য সেই নেতা পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামে প্রভাব বিস্তার করতে পারছিলেন না, তাই ‘প্রতিশোধ’ নিতে তিনি ভারতীদেবীকে ক্ষমতা থেকে সড়াতে চান। আর তাই পূর্ব মেদিনীপুরের সেই ‘দাপুটে’ নেতার বিজেপি-যাত্রা আটকাতেই নাকি ভারতীদেবীকে ‘বলি’ দেওয়া হয়েছে। যদিও এই খবরের সত্যতা বা সূত্র সম্পর্কে ওই ওয়েব পোর্টালে কিছু লেখা নেই, প্রিয়বন্ধু বাংলার তরফেও এই খবরের সত্যতা যাচাই করে দেখা সম্ভব হয় নি। এই প্রবন্ধ সম্পূর্ণরূপে ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবরের পরিপ্রেক্ষিতে করা, কোনোভাবেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নয় বা কোনো ব্যক্তি বা দলের সম্মানহানির উদ্দেশ্যে রচিত নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!