এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > পঞ্চায়েতের আগে শাসকদলের ‘হেভিওয়েট’ নেতার গ্রেপ্তারি নিয়ে সামনে এল নতুন তত্ত্ব

পঞ্চায়েতের আগে শাসকদলের ‘হেভিওয়েট’ নেতার গ্রেপ্তারি নিয়ে সামনে এল নতুন তত্ত্ব



নিজেদের দলের অন্তর্দ্বন্দ্বের কারণে দক্ষিণ কোলকাতার ৭৪ নম্বর ওয়ার্ডে ( মুখ্যমন্ত্রীর বিধানসভার এলাকাভুক্ত) শাসকদলের প্রভাবশালী নেতা প্রতাপ সাহার গ্রেফতারিকে কেন্দ্র করে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ভাঙচুর, হুমকি ও এলাকায় তোলা আদায় সহ একাধিক অভিযোগে গত ২৮ শে মার্চ সরাসরি নবান্ন সূত্রে তাঁর গ্রেপ্তারির সুপারিশ আসে। আর এর পরেই শুক্রবার ভোরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার গুরুদাসপুর এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। আদালত আগামী ১৩ ই এপ্রিল পর্যন্ত তাঁর পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু খোদ মুখ্যমন্ত্রীর এলাকার এইরকম প্রভাবশালী নেতার গ্রেপ্তার তাও আবার রাজ্যজুড়ে উত্তপ্ত পঞ্চায়েত পরিস্থিতির মধ্যে – রাজনৈতিক মহলে তুলে দিয়েছে একাধিক প্রশ্ন। তার থেকেও বড় কথা অত্যন্ত প্রভাবশালী এই নেতার বিরুদ্ধে পোস্টার হাতে তৃণমূলকর্মীদেরই শ্লোগান তুলতে দেখা গেছে। স্থানীয় সূত্রের খবর, কোলকাতা পুরসভার ৭৪ নম্বর ওয়ার্ডের স্থানীয় নেতা বিপ্লব রায়ের উপর প্রতাপবাবু ও তার সঙ্গীসাথী আক্রমণ চালায় কিছুদিন আগেই, যা শাসকদলের শীর্ষনেতৃত্ত্ব ভালোভাবে নেয় নি। এরপরেই তাঁর ঘনিষ্ঠ বেশকিছু অনুগামী বিপ্লববাবুর শিবিরে যোগ দেন। এঁদের মধ্যে অন্যতম মনোজ নস্করের কথায়, প্রতাপ এলাকায় তোলা ছাড়াও বিভিন্ন সমাজবিরোধী কাজে লিপ্ত। সেজন্য তৃণমূলের ভাবমূর্তি বজায় রাখতে তার সঙ্গ ছেড়েছি। আর এর পরিপ্রেক্ষিতেই সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক মহলের অভিমত, এমনিতেই পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষে রাজ্যজুড়ে বিরোধীরা ক্রমশ সুর চড়াচ্ছে, তার উপরে কোনো নেতার আপত্তিমূলক কাজের জন্য আর যেন বাড়তি প্রভাব না পরে তাই এই গ্রেপ্তারি। অন্যদিকে তৃণমূলের এক প্রভাবশালী মন্ত্রীর বক্তব্য, প্রতাপ অতটাও প্রভাবশালী নয় যে তার জন্য পঞ্চায়েতে প্রভাব পড়বে। অন্যায় করেছে তাই তাকে ধরা হয়েছে, আইন আইনের পথে চলবে। সবমিলিয়ে পঞ্চায়েতের আগে প্রতাপ-কাণ্ড নিয়ে জমজমাট শাসকদলের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!