এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > NRC নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! উঠে এল নতুন রাজনৈতিক সমীকরণ!

NRC নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের! উঠে এল নতুন রাজনৈতিক সমীকরণ!



গত ডিসেম্বর মাসে সংসদের দুই কক্ষে পেশ হয়েছিল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। আর এর পরেই তা ধ্বনী ভোটে পাস হয়ে যায়। আর সংসদে পাস হওয়া বিলে, রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর পরার পরই তা বর্তমানে পরিণত হয়ে গিয়েছে আইনে। এদিকে এই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন লাগু হওয়ার পর থেকেই তার চরম বিরোধিতায় সরব হয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। ইতিমধ্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ একাধিক বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারা এই আইন বাতিলের দাবিতে গর্জে উঠেছেন।

শুধু তাই নয়, নিজ নিজ রাজ্যে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী প্রস্তাব বিধানসভাতেও পাশ করতে দেখা গেছে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দল পরিচালিত সরকারগুলোকে। আর এবার বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর চাপে পড়েই কি এনআরসি থেকে সরে আসল কেন্দ্রীয় সরকার!সূত্রের খবর, এদিন সংসদে এই ব্যাপারে বিবৃতি দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রদপ্তরের প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই। লিখিতভাবে তিনি জানান, সারাদেশে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি কার্যকরের কোনো সিদ্ধান্ত এখনও পর্যন্ত গ্রহণ করেনি কেন্দ্রীয় সরকার।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, নাগরিকত্ব আইনকে যখন মান্যতা না দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিচ্ছে বিভিন্ন বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দল এবং তাদের মুখ্যমন্ত্রীরা, তখন কিছুটা হলেও বিপাকে পড়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। তাই এই পরিস্থিতিতে এনআরসি নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত কার্যকর করেনি কেন্দ্র বলে জানিয়ে দিয়ে সেই বিরোধীদের মুখ বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা করলেন কিন্তু নিত্যানন্দ রাই বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

অনেকে আবার বলছেন, এনআরসি নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়নি বলে কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রদপ্তরের প্রতিমন্ত্রী যে কথা বললেন, তাতে বিরোধীদেরই জয় হল। কিন্তু এই যুক্তির বিরোধিতা করছে আরেক অংশ। তারা বলছেন, পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির উত্থানে আতঙ্কিত হয়ে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত বিজেপি বিরোধী নেত্রী এনআরসি ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে সরিয়ে বিজেপিকে কোণঠাসা করতে চেয়েছিলেন।

কিন্তু এবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রীর কথা মত যদি সত্যি সত্যিই এনআরসি না হয়, তাহলে বিজেপি বিরোধিতা করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত রাজনীতিবিদদের কাছে আর কোনো অস্ত্র থাকল না। এখন গোটা পরিস্থিতি কোন দিকে এগোয়! কি হয় এনআরসির ভবিষ্যৎ! সেদিকেই নজড় থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!