এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > বাংলায় বদলের ডাক দিয়ে নরেন্দ্র মোদির স্পষ্ট ঘোষনা “দিদিকে” তিনি চিনতে ভুল করেছিলেন

বাংলায় বদলের ডাক দিয়ে নরেন্দ্র মোদির স্পষ্ট ঘোষনা “দিদিকে” তিনি চিনতে ভুল করেছিলেন



তৃনমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েকে সততার প্রতীক হিসেবে তুলে ধরে যখন আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে লড়ছে বাংলার শাসকদল, ঠিক তখনই সেই বাংলায় বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুকান্ত মজুমদারের সমর্থনে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বুনিয়াদপুরের নারায়নপুরে এসে সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সূত্রের খবর, গতকাল বেলা দশটায় নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী জনসভা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এই সময়ের আধঘন্টা পরে প্রধানমন্ত্রী সেই সভাস্থলে উপস্থিত হন।

আর মঞ্চে এসেই উৎসাহী জনতার প্রতি হাত নাড়িয়ে নিজের বক্তব্য পেশ করেন তিনি। এদিন নরেন্দ্র মোদির বক্তব্যের পুরোটাই বাংলার শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেস ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ছিল। এদিন বুনিয়াদপুরের নারায়নপুরের প্রবল জনসমাগম দেখে তিনি বলেন, “যতদূর তাকাচ্ছি, শুধুই মানুষ, আসলে বাংলার মানুষ এবার গুন্ডাগিরি, গরীবকে নিপীড়ন করা ‘দিদিকে’ উচিত শিক্ষা দেবেন। দিদি বাংলায় যা করেছেন, তাতে কেউ তাঁকে ক্ষমা করবেন না।” আর এরপরই দিদিকে চিনতে তিনি ভুল করেছিলেন বলে জনসভায় দাঁড়িয়ে দাবি করেন।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

নরেন্দ্র মোদী বলেন, “আমি দিদিকে চিনতে ভুল করেছিলাম। ভেবেছিলাম উনি সৎ। কিন্তু উনি যা করেছেন তাতে সকলের মাথা হেঁট হয়ে গেছে।” অন্যদিকে এদিনের সভা থেকে চিটফান্ড কেলেঙ্কারি নিয়েও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করেন নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, “ত্রিপুরা, অসমে আমরা সপ্তম বেতন কমিশন চালু করলেও বাংলায় তা হয়নি। আসলে দিদির কাছে গুন্ডাদের টাকা দেওয়ার অর্থ আছে। গুন্ডাগর্দির এই মডেলকে দিদি বাংলা মডেল বলে দেশে চালু করতে চান।”

পাশাপাশি দুদফার ভোটের পর পরিস্কার হয়ে গেছে বাংলায় বদল আসছে, তাই দিদির ঘুম উড়তে শুরু করেছে বলে জানান নরেন্দ্র মোদী। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সততার প্রতীক বলে যখন প্রচার করছে তৃনমূল, ঠিক তখনই সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই সততার ব্যাপারে প্রশ্ন তুলে তৃনমূলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে তৃতীয় দফার নির্বাচনের আগে বঙ্গে গেরুয়া ঝড় তুললেন নরেন্দ্র মোদী বলে মত বিশেষজ্ঞদের। এছাড়াও বাংলার সরকারি কর্মচারীদের বড় ক্ষোভ ডিএ ও পে-কমিশন নিয়ে – সেই ক্ষোভকেও তিনি তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে আরও উস্কে দিলেন বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!