এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা >  নন্দীগ্রামে শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ দিলীপের, পাল্টা তৃণমূল! জোর শোরগোল

 নন্দীগ্রামে শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ দিলীপের, পাল্টা তৃণমূল! জোর শোরগোল



 

তৃণমূল শুভেন্দু অধিকারীকে দিলীপ ঘোষের কেন্দ্র বলে পরিচিত খড়গপুর পুনরুদ্ধারে দায়িত্ব দেওয়ার পর থেকেই দিলীপ ঘোষ বনাম শুভেন্দু অধিকারীর লড়াই চরম আকার ধারণ করে। আর খড়্গপুরের দায়িত্ব নেওয়ার পরই দিলীপ ঘোষকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কিছুদিন আগেই অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া বিধানসভা উপনির্বাচনে সেই খড়গপুর তৃণমূলের দখলে আনতে সক্ষম হন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারীকে ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন দিলীপ ঘোষও।

তাইতো দ্বিতীয়বার রাজ্য সভাপতি হওয়ার সাথে সাথেই নন্দীগ্রামে এসে সেই শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ জানালেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি। সূত্রের খবর, শনিবার নন্দীগ্রামে বিজেপির অভিনন্দন যাত্রা কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। যেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। কিন্তু কিছুদূর যেতে না যেতেই, সেই অভিনন্দন কর্মসূচি আটকে দেয় পুলিশ।

যার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে ব্যাপক সরব হয় ভারতীয় জনতা পার্টির কর্মী সমর্থকরা। আর তারপরই তৃণমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রী তথা নন্দীগ্রামে তৃণমূল বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, “নন্দীগ্রামের বিধায়ক আগে ঠিক করুন, সামনের বার কোন কেন্দ্রে দাঁড়াবেন, না হলে জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।”


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশ্লেষকরা বলছেন, বিভিন্ন সময়ে দিলীপ ঘোষকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে দিলীপ ঘোষ রাজনীতিতে নবাগত বলে কটাক্ষ করেন তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারী। আর এবার সেই শুভেন্দু অধিকারীর খাসতালুকে এসে নন্দীগ্রাম তাদের দখলে একথা বোঝানোর চেষ্টা করে, শুভেন্দু অধিকারীর জামানত বাজেয়াপ্ত হবে বলে দাবি করলেন দিলীপ ঘোষ। তবে শুভেন্দু অধিকারীকে দিলীপ ঘোষ এহেন কটাক্ষ করলে, তাকে পাল্টা কটাক্ষ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

ঘাসফুল শিবিরের দাবি, দিলীপবাবুকে খড়্গপুরে হারিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাই তার মুখে এত বড় বড় কথা মানায় না। তিনি আগে নিজের ঘর সামলান। তারপর নন্দীগ্রাম দেখতে আসবেন। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, বিগত বাম সরকারের আমলে এই নন্দীগ্রাম থেকেই পরিবর্তনের আওয়াজ তুলেছিলেন রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তথা তৎকালীন বিরোধী দল তৃণমূল কংগ্রেস। আর এখন তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকায় তাদের ক্ষমতা থেকে সরাতে কি নন্দীগ্রামকেই টার্গেট করছেন ভারতীয় জনতা পার্টির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ! গতি প্রকৃতি থেকে রাজনৈতিক তরজা, সেকথাই বলছে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!