এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > “নাড্ডার নির্দেশ মত বুথ দখল চলছে” তৃতীয় দফার ভোটে বিস্ফোরক মমতা!

“নাড্ডার নির্দেশ মত বুথ দখল চলছে” তৃতীয় দফার ভোটে বিস্ফোরক মমতা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দুই দফার ভোটের পর তৃতীয় দফার ভোটকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু অশান্তির ঘটনা সামনে এসেছে। যেখানে তৃণমূলের বেশকিছু প্রার্থীকে মারধর করা সহ ভোটকেন্দ্রে ঢুকতে বাধা দেওয়া, ইত্যাদি ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে। স্বাভাবিকভাবেই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অভিযোগের আঙুল উঠেছে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দিকে। এমনিতেই নির্বাচনের ময়দানে বারবার কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বাধাদানসহ প্রভাবিত ভোটারদের প্রভাবিত করা একগুচ্ছ অভিযোগ তুলতে দেখা গেছে তৃণমূল কংগ্রেসকে।

এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন বিজেপির হয়ে কাজ করছে বলেও বিভিন্ন সভা থেকে অভিযোগ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয় দফার ভোটের দিন যখন বেশ কিছু অভিযোগ সামনে আসতে শুরু করেছে, তখন সরাসরি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নাম করে বুথ দখলের অভিযোগ তুললেন তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ারে দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে একটি সভা করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেখানেই সভা চলাকালীন তার কাছে খবর আসে যে, তৃতীয় দফার ভোটে বেশ কিছু জায়গায় কেন্দ্রীয় বাহিনী অত্যাচার করছে। আর এই খবর পেয়ে এই সভাস্থলে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নাম করে বুথ দখল করার অভিযোগ তোলেন তিনি।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “সকাল থেকে আমার কাছে খবর আসছে, বিজেপি হারছে। আর দেখছি, পাল্লা দিয়ে ওদের গুন্ডামি বাড়ছে। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা দিল্লিতে গিয়ে নির্দেশ দিয়েছেন, তার কথাতেই বুথ দখল করে গুন্ডামি করছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।” আর এতদিন শুধুমাত্র বিজেপির কথামত কমিশন কাজ করছে বলে অভিযোগ করতেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু তৃতীয় দফার ভোটে অশান্তির খবর পেয়ে সরাসরি যেভাবে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নাম করে বুথ দখল করার অভিযোগ তুললেন তৃণমূল নেত্রী, তা কার্যত নজিরবিহীন বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। পর্যবেক্ষকদের দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মত হেভিওয়েট নেত্রীর গলায় এই ধরনের অভিযোগ উঠে আসায় রীতিমত শোরগোল তৈরি হয়ে যেতে পারে রাজ্য রাজনীতিতে। গোটা ঘটনাকে হাতিয়ার করে বিজেপির পক্ষ থেকে পাল্টা প্রতিক্রিয়া আসতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে।

যেভাবে সরাসরি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির নাম করে বুথ দখলের অভিযোগ তুললেন তৃণমূল নেত্রী, তাতে কিছুটা হলেও চাপে পড়ে গেল ভারতীয় জনতা পার্টি। দুই দফার ভোটে শান্তিকর পরিবেশ বজায় থাকলেও তৃতীয় দফার ভোট গ্রহণকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা চরম পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে। তাই এই পরিস্থিতিতে বিজেপির সর্বভারতীয় নেতার বিরুদ্ধে বুথ দখলের অভিযোগ তুলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বক্তব্য রাজ্য রাজনীতিতে কতটা প্রভাব ফেলে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!