এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী নিয়ে চরম কোন্দল বিজেপিতে, সমস্যায় নেতৃত্ব!

পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী নিয়ে চরম কোন্দল বিজেপিতে, সমস্যায় নেতৃত্ব!



লোকসভা নির্বাচনে সারা রাজ্যে ভালো ফল করলেও, মুর্শিদাবাদ জেলায় বিজেপি ভালো ফলাফল করতে পারেনি। তবে বিধানসভা নির্বাচনের আগে পৌর নির্বাচনে এই জেলাতেও যাতে ভালো ফল করা যায়, তার জন্য নানা পরিকল্পনা সাজিয়েছিল ভারতীয় জনতা পার্টি। কিন্তু পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থী নিয়ে এখন মুর্শিদাবাদ জেলার বহরমপুরে কার্যত দ্বিধা বিভক্ত বিজেপির দুই গোষ্ঠী। প্রার্থী নিয়ে দলের পুরোনো এবং নতুন নেতাকর্মীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চরম আকার নিয়েছে বলে দাবি একাংশের। ফলে বিজেপির শক্তি তৃণমূলের থেকে বৃদ্ধি পেলেও, দলের এই অন্তর্কোন্দল বিজেপিকে খুব একটা ভালো জায়গায় রাখবে না বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি বহরমপুরে বিজেপির দুই গোষ্ঠীর বিবাদ সামনে চলে আসে। যেখানে বিজেপি’র একটি অংশের সদস্যরা জেলা নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান বিক্ষোভে বসে পড়েন। এমনকি পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে চলে যায় যে, দলের বিরোধী গোষ্ঠির এক নেত্রীকে অপর গোষ্ঠীর নেতাদের দ্বারা আক্রমণের শিকারও হতে হয়েছে।

আর সামনে যখন পৌরসভা নির্বাচন, যখন একেকটি ওয়ার্ড থেকে একাধিক ব্যক্তি প্রার্থী হতে চেয়ে বিজেপির কাছে দরবার করছে, ঠিক তখনই বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেই মনে করছে একাংশ। যার ফলে পৌরসভা নির্বাচনে ভালো ফল করা তো দূর অস্ত, উল্টে নির্বাচনে লড়াই করার সময় দলের কোন্দল প্রকাশ্যে চলে আসবে বলেই মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে কাঞ্চন মৈত্র নামে এক বিজেপি নেতা বলেন, “এবার পৌর নির্বাচনে অন্যরকম কিছু হতে চলেছে। আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে বাড়ি বাড়ি প্রচার যাচ্ছি এবং এনআরসি নিয়ে প্রচার হচ্ছে। তবে এই দলে আমি নতুন এসেছি। সবটা জানি না।” অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা শাখারভ সরকার বলেন, “দলের সবাই পৌর নির্বাচনে কাজ করছেন। নির্বাচনের সাফল্য পাওয়াই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য। দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে গিয়েছে। প্রার্থীর বিষয়টি নিয়ে নেতৃত্ব সিদ্ধান্ত নেবে।”

তবে যে যাই বলুন না কেন, বিজেপির ভালো অবস্থা থাকা সত্ত্বেও, বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল যদি এখন বন্ধ না হয়, তাহলে নির্বাচনে তাদের খারাপ ফলাফল হওয়া থেকে কেউ আটকাতে পারবে না বলেই মত সকলের। এখন গোটা পরিস্থিতি কোনদিকে গড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!