এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পৌরসভাকে পাখির চোখ করে জনসংযোগ শুরু করে দিলেন তৃনমূল নেত্রী, জেনে নিন!

পৌরসভাকে পাখির চোখ করে জনসংযোগ শুরু করে দিলেন তৃনমূল নেত্রী, জেনে নিন!



অতীতে করিমপুর বিধানসভার বিধায়ক ছিলেন তিনি। পরবর্তীতে গত লোকসভা নির্বাচনের সময় কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্র থেকে দাঁড়িয়ে সাধারণ মানুষের সমর্থন আদায় করে এখন তিনি তৃণমূল সাংসদ। এদিকে তিনি সাংসদ হওয়ার পর, তার ছেড়ে যাওয়া করিমপুর আসনে বিমলেন্দু সিংহ রায়কে জয়যুক্ত করার দায়িত্ব ছিল তার কাঁধে। আর সেই দায়িত্ব সফলতার সঙ্গে পালন করেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত গুডবুকে চলে গিয়েছেন মহুয়া মৈত্র।

ইতিমধ্যেই সংসদে একাধিকবার কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য রেখে রীতিমতো শোরগোল তুলে দিয়েছেন তিনি। আর এবার পৌরসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির হাওয়াকে ফিকে করতে নাগরিকত্ব ইস্যুকে সামনে রেখে জনসংযোগ করলেন কৃষ্ণনগর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী তথা সাংসদ মহুয়া মৈত্র। সূত্রের খবর, এদিন দলের জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর সন্ধ্যায় কৃষ্ণনগরে এসে বিভিন্ন ওয়ার্ডে জনসংযোগ করেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট মন্ত্রী।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এক নম্বর ওয়ার্ডে গিয়ে তিনি বলেন, “বড় কোনো কর্মসূচি নিয়ে আসিনি। এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলতেই এসেছি। নদীয়া জেলায় বহু উদ্বাস্তু মানুষ রয়েছেন। ওপার বাংলার বহু মানুষ আছেন। এখন এনপিআর, এনআরসি ইস্যু নিয়ে সকলের মধ্যে আতঙ্ক রয়েছে। অসমের পরিস্থিতি আপনারা জানেন। অসমে হিন্দুদের নাম এনআরসিতে উঠেছে। আপনাদের হয়ে আমরা সংসদে বিরোধিতা করছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই লড়াইয়ে প্রথম সারিতে রয়েছে। যদি কেউ ভেবে থাকেন, বিজেপি হিন্দুদের রক্ষক। তাদের বলব, ওদের মুখোশ করছে। ওরা হিন্দুদের ভক্ষক। দেখলেই সেটা পরিষ্কার হয়ে যাবে। বিজেপির নোংরা ফন্দিতে কেউ পা দেবেন না।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গত 5 জানুয়ারি কৃষ্ণনগর শহরের সভাপতিদের নিয়ে একটি সম্মেলনে নিজের মান অভিমানের কথা শোনান মহুয়া মৈত্র। কৃষ্ণনগরে ঠিকঠাক ভোট পাননি বলে অভিমানের কথা শুনিয়েছিলেন। কিন্তু এবার সেই অভিমানকে দূরে সরিয়ে রেখে, সাধারণ মানুষের সঙ্গে জনসংযোগ করে, বিজেপির বিরুদ্ধে এনআরসি ইস্যুকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করলেন মহুয়া মৈত্র বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

অনেকেই বলছেন, বিজেপির বিরুদ্ধে ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে মহুয়াদেবী পৌরসভা নির্বাচনের প্রচার শুরু করে দিলেন। সব মিলিয়ে এবার দিল্লির অধিবেশনের মাঝেই ঝটিকা সফরে কৃষ্ণনগরে এসে পৌরসভা নির্বাচনের ব্যাপক প্রচার সারলেন মহুয়া মৈত্র।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!