এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার এই পৌরসভা এল তৃণমূলের দখলে? অস্বস্তি বিজেপির অন্দরে!

এবার এই পৌরসভা এল তৃণমূলের দখলে? অস্বস্তি বিজেপির অন্দরে!



লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই বিজেপির প্রভাব-প্রতিপত্তি রাজ্যে বেড়ে ওঠায় অনেক পৌরসভার তৃণমূলের কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগ দেন। যার ফলে অনেক পৌরসভা তৃণমূলের দখলে থাকলেও, তা গেরুয়া শিবিরের দখলে ধীরে ধীরে চলে যায়। তবে সম্প্রতি অবস্থার পরিবর্তন হতে শুরু করেছে। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া কাউন্সিলররা ফের ফিরে আসতে চলেছেন তৃণমূল কংগ্রেস।

হাত থেকে চলে যাওয়া পৌরসভাগুলো ঘাসফুল শিবিরের দখলে আসছে। আর এই পরিস্থিতিতে এবার রামজীবনপুর পৌরসভা তারা দখল করেছেন বলে দাবি করলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি। শুধু তাই নয়, বিজেপির কাউন্সিলার তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন বলেও দাবি করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে এই পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল কাউন্সিলর শিবরাম দাস বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ফলে বিজেপির সদস্য সংখ্যা 6 হয়ে যায়। অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য সংখ্যা কমে দাঁড়ায় 5। আর এরপরই গত বছরের অক্টোবর মাসে এই পৌরসভায় একটি সভা করে সেই পৌরসভার রাশ নিজেদের বাগে নিয়ে আসে ভারতীয় জনতা পার্টি।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রথম থেকেই এই পৌরসভা নিজেদের দখলে রাখতে উদগ্রীব হয়ে উঠেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। আর তাইতো অনৈতিকভাবে বিজেপি এই পৌরসভা দখল করেছে বলে সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্টে অভিযোগ জানাতে দেখা যায় রাজ্যের শাসক দলকে। আর এরপরই মঙ্গলবার এই ব্যাপারে কলকাতা হাইকোর্ট তৃণমূলের পক্ষে রায় দিয়েছে বলে জানান জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি।

শুধু তাই নয়, এদিন বিজেপির কাউন্সিলর শিউলি সিংহ ভট্টাচার্যের তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানে তৃণমূলের সদস্য সংখ্যা আরও বেড়ে গেল। যার ফলে এই পৌরসভা দখল করা তৃণমূলের কাছে আর কঠিন কাজ হল না বলেই মত একাংশের। এদিন এই প্রসঙ্গে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, “রামজীবনপুর এলাকায় বিজেপির আরও অনেকেই আগামী কয়েকদিনে তৃণমূলে যোগ দেবেন।”

অন্যদিকে এই ব্যাপারে তৃণমূলকে পাল্টা কটাক্ষ করেছেন বিজেপি নেতা গোবিন্দ মুখার্জি। এদিন তিনি বলেন, “গায়ের জোরে গণতন্ত্রকে হত্যা করে তৃণমূল কংগ্রেস। এখানেও তাই করতে চাইছে। আর তৃণমূলকে এই ব্যাপারে মদত দিচ্ছে পুলিশ আধিকারিকরা।” কিন্তু বিজেপি তৃণমূলের বিরুদ্ধে যে অভিযোগই করুক না কেন, যেভাবে রামজীবনপুর পৌরসভা তৃণমূল দখল করল বলে দাবি করছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি, তাতে এখানে বিজেপি অনেকটাই ব্যাকফুটে পড়বে বলে দাবি ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!