এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > অভিষেক ব্যানার্জীর বিরুদ্ধে পাল্টা মানহানির মামলার আইনি নোটিশ মুকুল রায়ের

অভিষেক ব্যানার্জীর বিরুদ্ধে পাল্টা মানহানির মামলার আইনি নোটিশ মুকুল রায়ের



চাপের খেলায় তিনি যে মাথা নত করবেন না আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন মুকুল রায়, বাস্তবেও তিনি তাঁর আইনজীবী মারফত পাল্টা মানহানির মামলার করার কথা জানিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের করা আইনি নোটিশের জবাব দিলেন। গত ১০ ই নভেম্বর প্রকাশ্য জনসভা থেকে নথি দেখিয়ে মুকুল বাবু দাবী করেন ‘বিশ্ববাংলা’ আসলে রাজ্য সরকারের সম্পত্তি নয় তা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যক্তিগত মালিকানাধীন। তার পরিপ্রেক্ষিতেই নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে গত ১৩ ই নভেম্বর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আইনি নোটিশ পাঠিয়ে মুকুল বাবুকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বলেন। মুকুল বাবু যদি তা ক্ষমা না করেন তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে ফৌজদারি ও দেওয়ানি মামলা করা হবে বলেও জানানো হয়েছিল। এমনকি অভিষেক বাবুর আইনজীবী দাবী করেছিলেন, মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে মানহানির মামলাও করা হবে।
এদিন মুকুলবাবুর আইনজীবী সোম মণ্ডলের বক্তব্য থেকে জানা যাচ্ছে
১. অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবীর পাঠানো আইনি নোটিশ ভিত্তিহীন
২. তৃণমূল ছেড়ে মুকুল রায় বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন বলেই এভাবে তাঁর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করা হচ্ছে
৩. বিভিন্ন মনগড়া বিষয় একত্র করে ওই আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছিল
৪. মুকুল রায় রানী রাসমণি রোডের সভায় যা দাবি করেছিলেন তার সঙ্গে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবীর পাঠানো চিঠির কোনও সঙ্গতি নেই
৫. তাই ৭ দিনের মধ্যে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়ে তা জনসমক্ষে না জানালে, তাঁর বিরুদ্ধে মানহানির মামলার পথে হাঁটা হবে
৬. পাশাপাশি সম্পূর্ণ আইনি পথেও এগোনো হবে এই বিষয়ে
৭. ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আইনজীবীকে প্রত্যুত্তর দেওয়া হয়েছে মুকুল রায়ের পক্ষ থেকে
৮. ই-মেল এবং কুরিয়্যার (হার্ড কপি) উভয় মাধ্যমেই বক্তব্য জানানো হয়েছে

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!