এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > পঞ্চায়েত নিয়ে আদালতে ‘নৈতিক জয়’ পেতেই শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মুকুল রায়

পঞ্চায়েত নিয়ে আদালতে ‘নৈতিক জয়’ পেতেই শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মুকুল রায়



কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের করা মামলা খারিজ করে দিতেই খুশিতে উজ্জ্বল বিরোধী শিবির। আদালতের এই রায়কে একপ্রকার নৈতিক জয় হিসাবেই দেখছে বিজেপি। আর আদালতের ডিভিশন বেঞ্চের সিদ্ধান্ত প্রকাশিত হতেই নিজস্ব ভঙ্গিতে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে তীব্র আক্রমন করলেন বিজেপিনেতা মুকুল রায়। তিনি বলেন, পুলিশ, জেলা সুপার, জেলা শাসক, পুলিশ সুপার এবং আইসিকে নিয়ন্ত্রণ করছেন মুখ্যমন্ত্রী, নবান্নে বসে এই কাজ করছেন মুখ্যমন্ত্রী। ৩৪ বছরে বাম শাসনের অবসান হয়েছে রাজ্যে তৃণমূলেরও পতন অনিবার্য। ২০১৮ থেকে ২০২১ সালের মধ্যেই তৃণমূলের সরকারের পতন ঘটবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

প্রসঙ্গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়ন পর্বে শাসকদল সীমাহীন সন্ত্রাস করেছে বলে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারে নি, এই অভিযোগে বিরোধীরা কমিশনে গেলে – কমিশন মনোনয়নের দিন একদিন বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস সহ সভাপতি কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় কমিশনকে জানান এই ঘোষণা আইনসম্মত নয়, ফলে রাত না পেরোতেই তা প্রত্যাহার করে নেয় কমিশন। এরফলেই আদালতে যায় বিরোধীরা, আদালত নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ দিলে পাল্টা মামলা করে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই মামলায় আজ আদালতে খারিজ হয়ে যায়। আর তারপরেই মুকুল রায় নিজের প্রতিক্রিয়ায় জানান, এহেন সন্ত্রাস বাংলা ছাড়া ভারতের আর কোথাও হয় না। যেভাবে বিরোধীদের মনোনয়ন জমা না দিতে দিয়ে গণতন্ত্রকে ধংস করছে তৃণমূল। , তা মোটেই কাম্য নয়। তাই এই রায় শুধু বিজেপির জয় না, বাংলার সমস্ত গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষের জয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!