এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মুকুল রায়ের সফর ঘিরে জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

মুকুল রায়ের সফর ঘিরে জল্পনা রাজনৈতিক মহলে



পঞ্চায়েত নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এবার মাঠে নেমে পড়লেন মুকুল রায়। এতদিন বিজেপিতে যোগ দেবার পর থেকেই সভা করে ও সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে একের পর এক তোপ দাগছিলেন তিনি এবার তার পাশাপাশি পঞ্চায়েত ভোট জিততে এবং তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীদের চাঙ্গা করতে জেলাওয়াড়ি সফর করার সিদ্ধান্তও নিলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া এই নেতা। পঞ্চায়েত ভোট তাঁর কাছে বড় পরীক্ষা বলেই মনে করে রাজনৈতিক মহল, আর সেই পরীক্ষায় পাস করতে গেলে দলীয় কর্মীদের পশে পাওয়া প্রয়োজন একথা অনুভব করে তিনি ২৩ ডিসেম্বর থেকে ২৩ জানুয়ারি এই জেলাওয়াড়ি সফর করবেন বলে জানা গেছে। এই নিয়ে তিনি দিল্লির একাধিক নেতার সাথে বৈঠক করেছেন, আর তাঁদের কাছ থেকে সবুজ সংকেত মিলেছে বলেও সূত্রের খবর।
যতদূর জানা যাচ্ছে ২৩ ডিসেম্বর তিনি তাঁর এই সফর শুরু করছেন বীরভূমের সাঁইথিয়া থেকে যা শেষ হবে ২৩ জানুয়ারি কলকাতাতে। এই এক মাস তিনি রাজ্যের সব জেলায় যাবেন। এর আর একটি অন্য কারণও রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। মুকুল বাবুর ঘনিষ্ঠরা দাবি করছেন যে রাজ্যের বহু নেতা ও কর্মী বিজেপিতে যোগদান করতে ইচ্ছুক কিন্তু প্রকাশ্যে যোগ দিতে সাহস করছেন না তাঁরা। তবে মুকুল রায়ের সাথে যোগাযোগ রাখছেন নিয়মিত। তার ফলে এই সফরে বিজেপি আশা করছে বহু তৃণমূল নেতা কর্মী বিজেপিতে যোগ দেবে। প্রসঙ্গত এই সফরের সভাতে কেন্দ্রীয় নেতারাও থাকবেন, এমনকি থাকতে পারেন খোদ সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহও। যদিও এই একমাসের সফরে কোনো কোনো জায়গায় শাসকদলে ভাঙ্গন ধরাতে পারবেন বলে বিজেপি নেতৃত্ত্বের আশা কিন্তু শাসকদল একে আমল দিতে একেবারেই নারাজ। তৃণমূলের প্রাকৃত কর্মী-সমর্থক দল ছেড়ে যেতে চাইছেন এমন হতেই পারে না বলে তাঁদের দৃঢ় বিশ্বাস। যদিও সামগ্রিকভাবে রাজনৈতিক মহল বিজেপি নেতা হিসাবে মুকুল রায়ের এই জেলা সফরের দিকে। আদৌ কোনো পরিবর্তনের ইঙ্গিত দেয় নাকি রাজ্যের আস্থা বিরোধীদের সব দাবী উড়িয়ে এখনো তৃণমূল নেত্রীর সাথেই তা স্পষ্ট করে দিতে পারে মুকুল রায়ের এই রাজনৈতিক সফর বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!