এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শক্তিপরীক্ষা দিতে উলুবেড়িয়া উপনির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রবল সম্ভবনা মুকুল রায়ের

শক্তিপরীক্ষা দিতে উলুবেড়িয়া উপনির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রবল সম্ভবনা মুকুল রায়ের



তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করার পর তিনি কি করবেন তা নিয়ে জল্পনা সব রাজনৈতিক মহলেই।তিনি মুকুল রায়, রাজ্য-রাজনীতির খবরের শীর্ষস্থানে রয়েছেন বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই।দুর্গাপূজার আগে তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করে এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানান, পূজার পর তিনি তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ হিসাবে পদত্যাগ করবেন এবং সেই দিনই তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে সমস্ত সংস্রব ত্যাগ করে দিল্লিতে জানাবেন তাঁর তৃণমূল ত্যাগের কারন। এরপর কথামত তিনি পদত্যাগ করেন ঠিকই, কিন্তু তারপর সাংবাদিক বৈঠক ডেকে দলত্যাগের যে কারন ব্যাখ্যা করেন তাকে ‘বালখিল্য’ আখ্যা দিতে থাকেন রাজনীতির কারবারিরা। অনেকেই মনে করেন মুকুল রায়ের দলত্যাগ রাজ্য-রাজনীতিতে যে শাসকবিরোধী একটা মঞ্চ তৈরি করতে পারত তা অনেকটাই আঘাত পেল, শুধু তাই নয়, নতুন রাজনৈতিক ইনিংস শুরুর প্রাক্কালে কার্যত নিজেকে ব্যাকফুটে ঠেলে দিলেন স্বয়ং মুকুল রায়। সেই সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানান, আদতে তিনি এখন কিছুদিন ছুটি কাটিয়ে তবে আবার সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরবেন।
এর মাঝেই কলকাতার এক ওয়েব পোর্টাল দাবি করেছে যে সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরেই (সেটা নিজের দল খুলে আলাদা পথ চলাই হোক বা সরাসরি বিজেপিতে যোগদান) মুকুল রায় তাঁর রাজনৈতিক কৌশলের কার্যকারিতা প্রমানে মরিয়া।তিনি শাসকদলের বিরুদ্ধে একের বিরুদ্ধে এক ফর্মুলায় সমস্ত বিরোধী শক্তিকে এক ছাতার তলায় আনতে চাইছেন, ইতিমধ্যেই সমীর পুততুন্ডুর পিডিএস সহ বেশ কিছু ছোট দলের সঙ্গে মুকুলবাবুর কথা হয়ে গেছে এবং ওই ওয়েব পোর্টালের দাবি সমীরবাবুরা এই ফর্মুলায় রাজি।এখন মুকুলবাবু সিপিএম-কংগ্রেস-বিজেপি সহ বড় রাজনৈতিক দলগুলিকে এই ফর্মুলায় রাজি করানোর চেষ্টা করছেন, এমনকি বিজেপি ও কংগ্রেসের তরফ থেকে সাড়াও পেয়েছেন বলে ওই সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে। শেষ পর্যন্ত যদি মুকুলবাবু সত্যিই সমস্ত বিরোধী শক্তিকে এক ছাতার তলায় আনতে পারেন, তাহলে তিনি আদর্শ নেতার মত নিজে প্রার্থী হতে পারেন, সেক্ষেত্রে তিনি হেরে গেলেও বিরোধী ভোটের ভাগ হওয়া রুখে পশ্চিমবঙ্গের বুকে নতুন রাজনৈতিক সমীকরণ প্রতিষ্ঠা করতে সমর্থ হবেন, যা আগামীদিনে আরো জোরদার করতে পারবেন তিনি।যদিও এইখবরের সূত্র ও সত্যতা সম্পর্কে ওই পোর্টাল কোনো আলোকপাত করেনি বা প্রিয়বন্ধু বাংলাও এই খবরের সত্যতা যাচাই করে দেখতে পারে নি, এই প্রবন্ধ সম্পূর্ণরূপে ওই পোর্টালে প্রকাশিত খবরের উপর ভিত্তি করে লেখা ও কোনোরকম রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রনোদিত বা কোন রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তির সম্মানহানির উদ্দেশ্যে রচিত নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!