এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > রানী রাসমণি রোডের সাভার পর মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে আরো মামলার তোড়জোড়

রানী রাসমণি রোডের সাভার পর মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে আরো মামলার তোড়জোড়



গত শুক্রবার প্রথমবারের জন্য বিজেপির প্রকাশ্য সমাবেশ থেকে নিজের বক্তব্য রাখেন তৃণমূল ত্যাগী নেতা মুকুল রায়। আর প্রথমবারেই তিনি তাঁর আক্রমনের তীর রাখেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ডায়মন্ড-হারবারের মাননীয় সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেসের মাননীয় মহাসচিব ও শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দিকে। পার্থবাবুর বিরুদ্ধে বলতে গিয়ে মুকুলবাবু অভিযোগ করেছিলেন, নাকতলায় শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের পৃষ্ঠপোষকতার পুজো কমিটি ভুঁইফোঁড় অর্থলগ্নি সংস্থার মদত নিয়েছে। এর আগে লোগো-বিতর্কে মুকুল বাবুর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার কথা শোনা গিয়েছিল অভিষেকবাবুর অনুগামীদের মুখ থেকে। এবার তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার কথা ভাবছে নাকতলার ওই পূজা কমিটি।
এদিন ওই পুজো কমিটির থেকে জানা যায়, আমরা টুথপেস্ট, গয়না, খাবার-সহ বেশ কিছু পণ্যের বিজ্ঞাপন নিয়ে পুজো করেছি। সেই বিজ্ঞাপনগুলোর মডেল ছিলেন জাতীয় স্তরের ক্রিকেটার, অভিনেত্রীরা। বিজ্ঞাপনগুলো আমাদের কাছে এসেছে বিজ্ঞাপন সংস্থার মারফত। আমরা গোয়েন্দা নই! ফলে ওই ধরনের পণ্যের আড়ালে ওই সংস্থাগুলি চিটফান্ড চালায় কি না, তা জানার সুযোগ ছিল না। ২০১৩ সাল থেকে চিটফান্ড-বিতর্ক জানার পর থেকে কোনও সংস্থার বিজ্ঞাপন নেওয়ার আগে তার কর্মকাণ্ড যাচাই করে নেওয়া হয়। নাকতলা উদয়ন সংঘ মুকুলবাবুর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছে। এমনকি শিক্ষামন্ত্রী পার্থবাবুও বলেন, পুরনো কথা বলে লাভ কী? তা হলে তো কাঁচরাপাড়ার কালীপুজো কী ভাবে হয়, তারও তদন্ত হওয়া উচিত।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!