এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মুকুল রায়কে কটাক্ষ করলেন সেচমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মুকুল রায়কে কটাক্ষ করলেন সেচমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

Priyo Bandhu Media


 

শিয়ালদাহ শাখার ৮টি রুটের ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশে উত্তাল বঙ্গ রাজনীতি। কেন্দ্র -রাজ্যের দ্বন্দ্বের এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা। এই সিদ্ধান্তকেই বিজেপির বিরুদ্ধে প্রধান অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করছে শাসকশিবির। রাজ্যের সেচমন্ত্রীর বক্তব্য তারই প্রমাণ । তিনি নাম না করে মুকুল রায়কে নিশানা করে বলেন, যিনি সদ্য বিজেপিতে গেছেন তাঁকে প্রশ্ন করতে চাই তিনি তো রেলমন্ত্রী ছিলেন।স্বাধীনতার পর যতবার রেল-বাজেট ঘোষণা হয়েছে দেশবাসী নতুন নতুন রেল লাইন পেত। আপনার দল তো লাইন তুলে দিচ্ছে। এখন তার কি প্রতিক্রিয়া? যেসব বিজেপি নেতারা দাবি করেন কেন্দ্রীয় সরকার বাংলার উন্নতি করবেন তাঁদেরই বা কি মত? এইরকম তীব্র ভাষাতে আক্রমণ শানিয়াছেন সেচমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন , নরেন্দ্র মোদি চা বিক্রি করতেন জানা ছিল। এখন তো দেখছি দেশকেই বিক্রি করে দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য এই ঘোষণার পর তৃনমূলের সবস্তরের নেতৃত্বের তরফে যত না কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের প্রতি সমালোচনা করেছেন তার থেকে বেশি আক্রমণ শোনা গেছে মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে। এরপরই চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার চ্যালাঞ্জ করেন মুকুল রায় সহ বিজেপিকে। তিনি বলেন, “তৃনমূলের একটা পঞ্চায়েত সদস্যকে হারিয়ে দেখান তবে বুঝবো আপনি নেতা । যদি ভোটে আপনার জামানত জব্দ করতে না পেরেছি তা হলে রাজনীতি ছেড়ে দেব। তিনি মুকুল রায়কে হুমকির সুরে বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওনাকে রেলের ব্ল্যাক লিস্টেড কন্ট্রাক্টর থেকে রেলমন্ত্রী করেছিলেন। মানুষ কিছুই ভোলেনি। জবাব পঞ্চায়েত ভোটেই দেব। পাশাপাশি জেলা যুব তৃনমূল সভাপতি শান্তনু ব্যানার্জি বলেন, চুরির দায় থেকে বাঁচতে উনি বিজেপিতে গেছেন। নিজের ছেলেই তার হাত ধরে বিজেপিতে যায়নি। উনি ভাবেন কি করে রাজ্যের তৃনমূল কর্মীরা বিজেপিতে যোগ দেবেন। স্বভাবতই , কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের পর মুকুল রায়কে টার্গেট করেছে শাসকদল তা বলার অপেক্ষা রাখেনা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!