এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > এবার শাসকদলের বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ আনলেন মুকুল রায়

এবার শাসকদলের বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ আনলেন মুকুল রায়



বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর একের পর এক গুরুত্ত্বপূর্ন অভিযোগ এনে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে ব্যতিব্যস্ত করে রেখেছেন মুকুল রায়। কখনো দলীয় সভা থেকে, তো কখনো বিজেপির রাজ্য সদর দপ্তরে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে তো কখনো আদালতে গিয়ে মামলা ঠুকে। আর প্রতিটি অভিযোগের পিছনে অমোঘভাবে তিনি জুড়ে দিচ্ছেন নথি। আর তাই মুকুল রায় এখন মুখ খুললেই খবর। আজও তার অন্যথা হল না, তবে আজ তিনি কোনো নথি দেখাননি, উল্টে দিয়েছেন বাস্তবে ঘটে যাওয়া উদাহরণ।
আজ সকালে উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটিতে দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করতে গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। অভিযোগ সেই অনুষ্ঠান চলাকালীনই তৃণমূল তারস্বরে মাইক বাজিয়ে তা ভণ্ডুল করার প্রচেষ্টা করে। আর তার পরিপ্রেক্ষিতেই প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে এই বর্ষীয়ান রাজনীতিক জানান, এই ধরনের কাজ করে তৃণমূল গণতন্ত্রের কন্ঠরোধ করছে, এই ধরনের কাজই এখন তৃণমূলের সংস্কৃতিতে পরিণত হয়েছে। আমি দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করতে এসেছি, তা বানচাল করাই ছিল তৃণমূলের উদ্দেশ্য। কর্মী-সমর্থকদের এসব নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল উপরতলা থেকে, সেই নির্দেশ পেয়েই এই কাজ করেছেন কর্মীরা। দোষ ওঁদের নয়, তৃণমূল দলটাই এখন এই ভাবধারায় চলছে। এরপর তিনি ভয়ঙ্কর ভাবে তাঁর পুরোনো দলকে অভিযুক্ত করেন এই বলে যে, তৃণমূল গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে ভয় পায়, তাই তাঁরা গণতন্ত্র রক্ষার শপথ নিয়েও, তা রক্ষা করতে ব্যর্থ। অস্তিত্ব হারানোর ভীতি থেকেই তৃণমূল এখন শপথকে পদদলিত করে গণতন্ত্র নিধন করে চলেছে। এই ঘটনাই ইঙ্গিত করছে, এই দলের কাছ থেকে এর বেশি কিছু আশা করা বৃথা। এখন দেখার রাজ্যের শাসকদল সম্পর্কে সরাসরি ‘গণতন্ত্রের নিধনকারী’ এর মত ভয়ঙ্কর শব্দ প্রয়োগ করে নতুন কি আলোড়ন তৈরি করেন তিনি রাজ্য-রাজনীতিতে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!