এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রীর পদ প্রার্থী হওয়া নিয়ে এবার মুখ খুললেন সুপ্রিমকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি

মুখ্যমন্ত্রীর পদ প্রার্থী হওয়া নিয়ে এবার মুখ খুললেন সুপ্রিমকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – আগামী ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গের মতো আসামেও রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। আসামের আসন্ন এই বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হতে চলেছেন সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জন গগৈ । এমনই দাবি করেছিলেন গত শনিবার আসামের প্রাক্তন কংগ্রেসী মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ। তবে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে আসা এই দাবিকে সম্পূর্ণভাবে ভিত্তিহীন বলে জানালেন প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জন গগৈ।

প্রসঙ্গত গত শনিবার আসামের প্রাক্তন কংগ্রেসী মুখ্যমন্ত্রী তথা আসামের বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তরুণ গগৈ জানিয়েছিলেন, ” আগামী নির্বাচনে প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করতে পারে গেরুয়া দল। কেননা বিজেপির সমর্থনে তিনি রাজ্যসভায় গিয়েছেন। পাশাপাশি অযোধ্যা নিয়ে তাঁর রায়ে খুশি বিজেপি।”

প্রসঙ্গত সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বর্তমানে যথেষ্ট পরিচিত ও জনপ্রিয় হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ মামলার যথোপযুক্ত সমাধান করে। প্রসঙ্গত সুপ্রিম কোর্টে দীর্ঘদিন ধরে ফাইলবন্দি ছিল রাম মন্দির মামলাটি। অত্যন্ত স্পর্শকাতর এই মামলার যুক্তিযুক্ত সমাধান করা মোটেই সহজ ছিল না। কিন্তু দুরূহ কাজটি করতে পেরেছিলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। গত ২০১৯ সালের ৯ ই নভেম্বর তার নেতৃত্বেই সুপ্রিম কোর্ট থেকে রাম জন্মভূমি অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের ও বাবরি মসজিদ অন্যত্র স্থানান্তর নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

এই দানের পর সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জন গগোই। এরপর তিনি রাজ্যসভার বিজেপি সাংসদ হয়েছেন। সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি কে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে দাবি করে আসামের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ জানিয়েছিলেন, রাম মন্দির মামলায় ইতিবাচক রায়দানের জন্য তার ওপরে বিজেপি যথেষ্ট সন্তুষ্ট ।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এ কারণেই বিজেপি তাকে রাজ্যসভার সংসদ করেছে । আর তাঁর রায়দানের বড় পুরস্কার হিসেবে আগামী দিনে বিজেপি থেকে আসামের মুখ্যমন্ত্রীর সিংহাসনে বসতে চলেছেনা তিনি। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেছিলেন যে, রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্খার কারণেই প্রাক্তন বিচারপতি মানবাধিকার কমিশনের শীর্ষপদে আহরণের কোনো চেষ্টা না করে রাজ্যসভার সংসদ পদ গ্রহণ করেছিলেন।

কিন্তু এই প্রসঙ্গে আসামের রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয়া হলো, সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি কে তারা পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করছেন না। আসাম রাজ্য বিজেপি সভাপতি রঞ্জিত কুমার দাস এ প্রসঙ্গে জানালেন, ” মানুষের বয়স বাড়লে অনেক কিছুই বলেন। তরুণ গগৈয়ের মন্তব্যকে আমরা ওই পর্যায়ে ধরে নিচ্ছি। উনি অসত্য বলেছেন।”

অন্যদিকে ইতিপূর্বেই সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি স্বয়ং আসামের প্রাক্তন বিচারপতি তরুণ গগৈ এর এই দাবি খারিজ করেছিলেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন “ আমি বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী নই। ” এরসঙ্গে তিনি গত কাল রবিবার এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে জানালেন, ” আমি রাজনীতিবিদ নই। এরকম উচ্চকাঙ্ক্ষা এবং অভিপ্রায়ও আমার নেই। আমাকে এজাতীয় সম্ভাবনার কথাও কেউ বলেননি। “

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!