এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রীর থেকে ৯০০% বেশি জনপ্রিয় প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী? ফেসবুক তথ্যে অস্বস্তিতে শাসকদল?

মুখ্যমন্ত্রীর থেকে ৯০০% বেশি জনপ্রিয় প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী? ফেসবুক তথ্যে অস্বস্তিতে শাসকদল?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিহার বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে এসে বড় হয়ে দাঁড়াচ্ছে এবার নীতীশ কুমারের সাথে মহাজোটের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী তেজস্বী যাদব এর জনপ্রিয়তার তুলনা। 2020 বিহার বিধানসভা নির্বাচনের ক্ষেত্রে কোনরকম সমীক্ষাই জোর দিয়ে বলতে পারছেনা চতুর্থবারের জন্য নীতীশ কুমারই ক্ষমতায় ফিরছেন কিনা। বলাইবাহুল্য নীতীশ কুমারের জনপ্রিয়তাও বর্তমানে তলানিতে। রাজনৈতিক মহলের অনেকেই মনে করছেন, জনপ্রিয়তার নিরিখে কিন্তু নীতীশ কুমারসকে বহুগুণে পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছে লালু পুত্র তেজস্বী যাদব।

আর সেই সত্য ফুটে উঠেছে ভার্চুয়াল সমীক্ষায়। সাধারণত বরাবরই কোন নেতার রাজনৈতিক মঞ্চে জনমানসে তার প্রভাব বা জনসভায় ভিড় টানার ক্ষমতা বা ভোটের ময়দানে তার সাফল্য জনপ্রিয়তার পরিমাপ হিসেবে ধরা হয়। কিন্তু বর্তমানে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে এসেছে ভার্চুয়াল জগত। আর এই ভার্চুয়াল জগতে সোশ্যাল মিডিয়া একটি বিশাল বড় ভূমিকা পালন করে জনমানসে প্রভাব বিস্তার করতে। বিহারের ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে ভোটের মরসুমে জনপ্রিয়তার নিরিখে কিন্তু ফেসবুকে এগিয়ে গেছেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব।

বিহারের প্রথম দফা ভোটের দিন একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে নীতীশ কুমার এবং তেজস্বী যাদবের ফেসবুকের জনপ্রিয়তা সংক্রান্ত একটি সমীক্ষা প্রকাশ হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে ভোটের দিন ঘোষণা থেকে প্রথম দফার নির্বাচন পর্যন্ত তেজস্বী যাদব নীতীশ কুমারের থেকে 9 গুণ বেশি লাইক পেয়েছেন। উল্লেখ্য, দুজনেরই ফলোয়ার 15 লক্ষ্যের কাছাকাছি। কিন্তু ভোটের দিন ঘোষণার পর থেকেই দেখা যাচ্ছে, একটু একটু করে তেজস্বী যাদব কিন্তু ছাড়িয়ে গেছে বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

25 শে সেপ্টেম্বর বিহার বিধানসভার নির্বাচনের দিন ঘোষণা হয়েছিল। আর তারপর 25 শে অক্টোবর পর্যন্ত ফেসবুকে 67 টি রাজনৈতিক পোস্ট করেছেন নীতীশ কুমার। সেখানে কমবেশি 3 লক্ষ 70 হাজার রিঅ্যাকশন পেয়েছেন নীতীশ কুমার। প্রতিটি পোস্টে বিহারের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী 5572 টি করে রিঅ্যাকশন পেয়েছেন। অন্যদিকে বিরোধী নেতা তেজস্বী যাদব এই সময়কালে 94 টি রাজনৈতিক পোস্ট করেছেন। এবং সেখানে তিনি রিঅ্যাকশন পেয়েছেন প্রায় 47 লক্ষ।

তেজস্বীর প্রতিটি পোস্টে রিঅ্যাকশন পড়েছে প্রায় 51 হাজারের মতো। অন্যদিকে দেখা যাচ্ছে, যেখানে তেজস্বী যাদব তাঁর পোস্টে মোট রিঅ্যাকশনের 3.5% লাভ রিয়্যাক্ট পেয়েছেন, এবং অ্যাংরি বা রাগের রিঅ্যাকশন পেয়েছেন মাত্র 0.04%। পাশাপাশি নীতীশ কুমার রাগের রিঅ্যাকশন পেয়েছেন প্রায় 1.65%, যা তেজস্বীর পোষ্টের থেকে প্রায় 40 গুণ বেশি মানুষ রাগ দেখিয়েছে নীতীশের পোষ্টে। এই তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে এনডিএ জোট কিন্তু যথেষ্ট চাপের মুখে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষজ্ঞদের মধ্যে অনেকেই মনে করছেন, লালু পুত্র তেজস্বী যাদব এর সভাতে তুমুল ভিড়, নীতীশের সভায় লালুর নামে জয়ধ্বনি এবং প্রচারপর্বে তরুণদের দাপট- সব মিলিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী তেজস্বী যাদব এর জনপ্রিয়তা ভালোই টের পাওয়া যাচ্ছে বিহারে। অন্যদিকে ফেসবুক তথ্য খুব স্বাভাবিকভাবেই মুখ্যমন্ত্রীর দলসহ এনডিএ সরকারের অন্যান্য শরিকদের চাপে ফেলেছে ভালোই। রাজনৈতিক মহলের অনেকের মতেই, ফেসবুকের সমীক্ষা ভোটবাক্সে কতটা ছাপ ফেলবে, তা নিয়ে কিন্তু প্রশ্ন থাকছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!