এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মুখ্যমন্ত্রীকে চাপে ফেলতে পদক্ষেপ প্রশান্ত কিশোরের, যুব সমাজকে নিয়ে নামছেন পথে!

মুখ্যমন্ত্রীকে চাপে ফেলতে পদক্ষেপ প্রশান্ত কিশোরের, যুব সমাজকে নিয়ে নামছেন পথে!



একের পর এক মতানৈক্য এবং তার পর অবশেষে বেশ কিছুদিন আগে জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হন প্রশান্ত কিশোর। যেখানে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী তথা জেডিইউ সুপ্রিমো নিতিশ কুমার দলের সহ-সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে বহিষ্কার করে দেন প্রশান্ত কিশোরকে। আর বিশিষ্ট এই রণনীতিকারের পরবর্তী লক্ষ্য কী হবে, তা নিয়ে এতদিন রাজনৈতিক মহলে চলছিল নানা জল্পনা। একাংশ বলছিলেন, যেখানে প্রশান্ত কিশোর অন্যান্য রাজনৈতিক দলকে সাফল্য পাইয়ে দেওয়ার জন্য কাজ করছেন, সেখানে নিতিশ কুমার তাকে দল থেকে বের করে দিলেও, তিনি কি তার কোনোরুপ বদলা নেবেন না!

অনেকের মনে এটাও আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল যে, প্রশান্ত কিশোর কি তাহলে এবার বিহার থেকে ধীরে ধীরে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছেন! কিন্তু না। যেমনটা সকলে ভেবেছিলেন, ঠিক তেমনটা তিনি করলেন না। এতদিন নীতীশ কুমারের দলে থেকে সবকিছু সামলালেও, এবার নিজের টার্গেট সেই বিহারে রেখেই নিজের সংস্থার উদ্যোগে যুব সমাজকে সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নেওয়ার জন্য কাজ শুরু করলেন প্রশান্ত কিশোর। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই প্রশান্ত কিশোরের টিমের তরফ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে যে, তারা বিহারের যুবকদের মধ্যে কাজ করার প্রক্রিয়া শুরু করবে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, বিহারের এক কোটি মানুষের মধ্যে যাদের বয়স 18 থেকে 35 এর মধ্যে, সেই সমস্ত যুবকদের কাছে আগামী 100 দিনের মধ্যে পৌঁছে যাবে প্রশান্ত কিশোরের টিম। আর হঠাৎ বিহারের দিকে প্রশান্ত কিশোরের এই নজর নিয়ে এখন রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে গুঞ্জন। অনেকে বলছেন, সামনেই বিহার বিধানসভার নির্বাচন। তার আগে নিতিশ কুমার যেভাবে প্রশান্ত কিশোরকে দল থেকে বের করে দিলেন, তাতে কিছুটা হলেও অপমানিত বোধ করছেন তিনি। আর তারই বদলা নিতে যুব সম্প্রদায়ের মধ্যে নিজের সংস্থার মধ্যে দিয়ে বিস্তার ঘটাতে উদ্যোগী হয়েছেন নির্বাচনী রননীতিকার।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ছাত্র এবং যুব সম্প্রদায়ের রাজনীতির পরিবর্তন ঘটাতে পারে। আর তা ভালোই উপলব্ধি করেন প্রশান্ত কিশোর। আর তাই নিজের সংস্থা আইপ্যাকের মধ্যে দিয়ে বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের আগে ছাত্র এবং যুবদের নিজের দিকে টানতে প্রক্রিয়া শুরু করে দিতে চাইছেন তিনি। যা আগামী বিধানসভা নির্বাচনের আগে নীতীশ কুমারের জেডিইউকে অনেকটাই চাপে রাখবে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের। এখন গোটা পরিস্থিতি কোন দিকে এগোয়, প্রশান্ত কিশোর ব্যাপক যুবসমাজকে নিজেদের দিকে টানতে কতটা সক্ষম হন, আর যদিও বা এই কাজে তিনি সক্ষম হন, তাহলে তার পরবর্তী লক্ষ্য কি হয়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!