এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নতুন বছরে মোদী সরকারের সিদ্ধান্ত, সাংসদদের জন্য বড়সড় দুঃসংবাদ

নতুন বছরে মোদী সরকারের সিদ্ধান্ত, সাংসদদের জন্য বড়সড় দুঃসংবাদ



এবার থেকে আর সাংসদদের পাতে আর কোন আমিষ পদ মিলবে না। খুব শিগগিরই পার্লামেন্টের ক্যান্টিন হতে চলেছে সম্পূর্ণ নিরামিষ। নতুন বছরের শুরুতেই কেন্দ্রীয় সরকার সংসদ থেকে আমিষ রূপান্তরিত করে একেবারে নিরামিষ করে দিচ্ছেন। এমনিতেই সংসদের ক্যান্টিনে সস্তা খাবার নিয়ে রীতিমত বিতর্ক চলছিল অনেকদিন ধরেই। নতুন বছরের শুরুতেই সংসদের ক্যান্টিনের খাবারের উপর থেকে ভর্তুকি অনেকটাই কমিয়ে নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। অতএব ভর্তুকির দিন শেষ। বিভিন্ন খাবারের দাম বাড়তে চলেছে সংসদে।

অতএব সংসদের ক্যান্টিনে দাম বাড়ার সাথে সাথে এবার আর পাওয়া যাবে না বিখ্যাত বিরিয়ানি অথবা চিকেন কাটলেট। সম্পূর্ণ নিরামিষের ওপরই নির্ভর করতে হবে সাংসদদের। এবং পার্লামেন্ট কর্মীদের কোনরকম আমিষ পদ এবার থেকে আর সংসদের ক্যান্টিনে রান্না করা হবে না বলে সূত্র মারফত জানা গেছে। দ্বিতীয় বার মোদি সরকার আসার পরেই তীব্র বিতর্ক শুরু হয় সংসদের ক্যান্টিনের খাবারের ওপর। ভর্তুকি নিয়ে বলা হয়, জনগণের টাকাতেই এত সস্তার খাবার দেওয়া হচ্ছে। বিতর্ক কমাতে প্রধানমন্ত্রী মোদি এবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খাবারের ওপর ভর্তুকি কমানো হবে।

এবার থেকে সংসদের ক্যান্টিনে নতুন দায়িত্ব পেতে পারে হলদিরাম অথবা বিকানেরওয়ালা। বহুদিন ধরেই অভিযোগ উঠেছে, আইআরসিটিসির খাবারের মান নিয়ে। এবার সেই কারণে আইআরসিটিসির হাত থেকে ক্যান্টিন পরিচালনার দায়িত্ব সরিয়ে নেওয়া হতে পারে বলে খবর। যদি হলদিরাম বা বিকানেরওয়ালা ক্যান্টিনের দায়িত্বে আসেন তাহলে সংসদের ক্যান্টিন যে পুরোপুরি নিরামিষ খাদ্যঘর হতে চলেছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অতএব এবার থেকে সংসদের ক্যান্টিনে আর পাওয়া যাবেনা বিরিয়ানি, চিকেন কাটলেট আর ফিশ অ্যান্ড চিপস। এতদিন ধরে ক্যান্টিনের এইসব রান্নার সুখ্যাতি সাংসদদের মধ্যে প্রবল পরিমাণে ছড়িয়েছিল। সাংসদরা এগুলো ছাড়া কোন খাবার খেতে চাইতেন না বলে জানা গেছে। কিন্তু এবার পার্লামেন্টের ক্যান্টিন সংক্রান্ত মোদি সরকারের পদক্ষেপের ফলে সংসদের ক্যান্টিন পুরোপুরি নিরামিষ হতে চলেছে বলে জানা গেছে। আপাতত এই নিয়ে সংসদের মনে অল্প হলেও অভিমানের সৃষ্টি করেছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

অন্যদিকে, রাজনৈতিক সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী সংসদের ক্যান্টিনের বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে এতদিন সংসদের ক্যান্টিন চালানোর জন্য ভর্তুকি পেত আইআরসিটিসি। এবার বেসরকারি সংস্থাকে ক্যান্টিনের দায়িত্ব দেওয়া হবে এবং ভর্তুকি সম্পূর্ণরূপে তুলে নেওয়া হবে বলে খবর। এতে বছরে প্রায় 17 কোটি টাকা বাঁচবে সরকারের ঘরে। এদিকে, সংসদের ক্যান্টিন কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী জানা গেছে, এবার থেকে ‘লাভ নয়-লোকসান নয়’ নীতিতে খাবার বিক্রি করা হবে। তবে ক্যান্টিনের খাবারের দাম নিয়ে ইতিমধ্যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে শুধু এবার নয়, এরপরেও সময়ে সময়ে প্রয়োজনমতো দাম নিয়ে পর্যালোচনা করা হবে বলে জানানো হয়েছে। আপাতত সম্পূর্ণ পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!