এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > মোদির মেদনীপুরের সভা নিয়ে মাত দিতে তৃণমূলের মাস্টারস্ট্রোক

মোদির মেদনীপুরের সভা নিয়ে মাত দিতে তৃণমূলের মাস্টারস্ট্রোক



মেদিনীপুর আন্দোলনের মাটি। গতবছরই ভারত ছাড়ো আন্দোলনের দিন এই মেদিনীপুরের মাঠ থেকেই বিজেপিকে ভারত থেকে বিদায় জানানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবারও সেই ভারত ছাড়ো আন্দোলন উপলক্ষে আগামী 9 আগষ্ট মেদিনীপুর কলেজিয়েট মাঠে সভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু এবারের সভার রাজনৈতিক গুরুত্বঔ রয়েছে প্রচুর। কারন আগামী 16 ই জুলাই রাজ্যে মেদিনীপুরে কৃসক কল্যানে এই মেদিনীপুরের মাঠেই সভা করতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর তারই কদিন পর তৃনমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সভাকে বিজেপির পাল্টা সভা হিসাবেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। তৃনমূল সূত্রের খবর, নরেন্দ্র মোদীর সফরের কদিন পরই রয়েছে কোলকাতার ধর্মতলায় 21শে জুলাই উপলক্ষে দলের শহীদ সমাবেশ।

সেদিনই প্রধানমন্ত্রীর এই সফরকে তুলোধোনা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারপরই 9 ই আগষ্ট সেই মেদিনীপুরের মাঠ থেকেই 2019 এ কেন্দ্রের বিজেপিকে উৎখাতের ডাক দেবেন দলনেত্রী। তবে তৃনমূলের মেদিনীপুরের এই পাল্টা সভা প্রসঙ্গে শাসকদলকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, “বিজেপি যেখানে সভা করবে তৃনমূল সেখানেই নকল করে নিজেদের সভা করছে। এভাবে নিজেদের খেলো করে লাভ কি?”

অন্যদিকে তৃনমূলের প্রতিক্রিয়া, “রাজ্যটার নাম পশ্চিমবঙ্গ। তাই এখানকার নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুদীর বিরুদ্ধে সভা করে টিকে থাকতে হয় না।” রাজনৈতিক মহলের মতে, ‘বাংলার মাটি সত্যিই দুর্জয় ঘাঁটি।’ তাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নাকি ঘরের মেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়! রাজনৈতিক সভা, পাল্টা সভায় যাই হোক না কেন! 2019 এ কাকে বাছবে বাংলা সেদিকেই তাকিয়ে সকলে। আর লোকসভাকে পাখির চোখ করে একে অপরের বিরুদ্ধ যে এই সভা তা বুঝতে বাকি নেই কারুরই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!