এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > কংগ্রেস > মোদিকে প্যাঁচে ফেলতে গিয়ে নিজেরাই বড়সড় ধাক্কা খেয়ে গেলেন সোনিয়া-রাহুল-প্রিয়াঙ্কা! জেনে নিন

মোদিকে প্যাঁচে ফেলতে গিয়ে নিজেরাই বড়সড় ধাক্কা খেয়ে গেলেন সোনিয়া-রাহুল-প্রিয়াঙ্কা! জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে নানা সময় বিড়ম্বনায় ফেলতে চেয়েছে বিরোধী দল কংগ্রেস। কখনও তা সাফল্য পেয়েছে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কেন্দ্রের মোদী সরকারের কাছে ধাক্কা খেতে হয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে‌। এবার আরও একবার সুপ্রিমকোর্টে ধাক্কা খেল কংগ্রেস। জানা গেছে, পিএম কেয়ার ফান্ডের টাকা জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিলের ট্রান্সফারের দাবিতে দেশের শীর্ষ আদালতে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছিল।

কিন্তু শীর্ষ আদালত সেই আবেদন নাকচ করে দেওয়ায় এখন চরম অস্বস্তির মুখে পড়ল কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্ব। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে পিএম কেয়ার্স ফান্ড তৈরি করে সেখানে দেশবাসীকে আর্থিক সাহায্যের অনুরোধ জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই মত দেশের অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তি থেকে শুরু করে অনেকেই এই একাউন্টে তাদের সাধ্যমতো অনুদান করেন। তবে পিএম কেয়ার্স ফান্ডে যারা অনুদান প্রদান করবে, তারাই করের ক্ষেত্রে ছাড় পাবেন বলেও জানানো হয়েছিল।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর এই বিষয় নিয়ে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করা হয়। আর সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার জানিয়ে দেওয়া হয়, এরকম কোনো নির্দেশ তারা দিতে পারবেন না‌। কেননা এনডিআরএফের তহবিলের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতির কোনো সম্পর্ক নেই। তাই দুটি সম্পূর্ণ পৃথক হিসেবেই থাকবে বলে জানিয়ে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। এদিকে শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে এই রকম কথা জানানোর পরই কিছুটা হলেও চাপে পড়ে কংগ্রেস।

এদিন কংগ্রেসকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। তিনি বলেন, “পিএম কেয়ার্স অ্যাকাউন্টের টাকা নিয়ে প্রশ্ন করেছেন যারা, তারাই সব থেকে বেশি সরকারের টাকা নয়ছয় করেছে। প্রধানমন্ত্রী বিপর্যয় মোকাবিলা তহবিলের টাকা নিজেদের পারিবারিক ট্রাস্টে ব্যবহার করেছে গান্ধী পরিবার।” সব মিলিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা হলেও সেই ঘটনায় মামলাকারী সংস্থা থেকে শুরু করে বিরোধী দল যে অনেকটাই চাপে পড়ল, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!