এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কেন মোদীর সভার জন্য মেদিনীপুরকে বাছলো বিজেপি, জানালেন হেভিওয়েট নেতা

কেন মোদীর সভার জন্য মেদিনীপুরকে বাছলো বিজেপি, জানালেন হেভিওয়েট নেতা



২১ জুলাই শহীদ দিবস উপলক্ষ্যে ধর্মতলায় তৃণমূলের জনসভার প্রস্তুতি পর্ব হিসাবে পশ্চিম মেদীনিপুরে এদিন হয়ে গেলো ঘাসফুল শিবিরের বেশ কয়েকটি জন সমাবেশ। সেখানে হাজির ছিলেন তৃণমূলের সাংসদ মানস ভুঁইঞা।ক্ষীরপাই টাউন হল,ঘাটাল টাউন হল এবং দাসপুরেও সভা করেন তিনি। তৃণমূলের সংগঠনকে চাঙ্গা করার পাশাপাশি গর্জে উঠেছিলেন বিরোধী শিবির বিজেপি প্রসঙ্গে। ১৬ জুলাই মোদীজির মেদিনীপুরে সভা করা নিয়েও কটাক্ষ করলেন তিনি।

জানালেন, ধর্মতলায় তৃণমূলের আসন্ন ২১ জুলাই জনসভার মতো লোক জমায়েত করতে পারবে না বিজেপি। তাই আগেভাগেই নিজেদের মান বাঁচাতে প্ল্যান করে কোলকাতার পরিবর্তে তুলনায় ছোট মেদিনীপুর কলেজ মাঠকেই মোদীজির সভার জন্যে বেছেছেন তাঁরা। এরপর সরাসরি প্রধানমন্ত্রী মোদীজিকে আক্রমণ শানিয়ে বলেন যে, বিপ্লবের মাটিতে দাঁড়িয়ে কোনোভাবেই বিভেদের রাজনীতির ভীত তৈরি করা যাবে না। বিপ্লবের অগ্নিকন্যা হল মেদিনীপুর এবং রাজনীতির অগ্নিকন্যা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই বিপ্লবের ক্ষেত্রভূমিতে দাঁড়িয়ে কোনোভাবেই বিভেদের রাজনীতি কায়েম করে মেদিনীপুরের বুকে ক্ষত সৃষ্টি করা যাবে না।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এর পাশাপাশি তিনি বিগত বছরগুলোতে কৃষকহত্যা নজির তুলেও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেন যে মোদীজির ৪ বছরের শাসনকালে ১৪ হাজার কৃষক আত্মহত্যা করে ফেলেছে। এরমধ্যে বিজেপির আওতাধীন মহারাষ্ট্রের বুকেই ১১ হাজার কৃষক আত্মবলি দিয়েছেন। এর পাশাপাশি তুলনায় টানেন তিনি এ তৃণমূল শাসিত এ রাজ্যকে। জানান যে, তৃণমূলের আওতায় থাকা কৃষিদপ্তর চার বার এখনো অব্দি কর্মণ পুরস্কার পেয়েছে। একজন কৃষক আত্মহত্যার নজির দেখা যায়নি এ রাজ্যে।

এছাড়াও ২ টাকা কিলো দরে চাল পাচ্ছেন দরিদ্র সীমার নীচে থাকা। ৮ কোটি ৬৬ লাখ মানুষ। প্রতিদিনের মজুরিতেও ভারতের শীর্ষে রয়েছে বাংলা। ধান উৎপাদনেও প্রথম স্থানে রয়েছে এ রাজ্য। শক্তিতে, মাছ উৎপাদনেও এ রাজ্য দেশের বাকি প্রদেশ গুলোকে ছাপিয়ে গেছে। আলু উৎপাদনের উওরপ্রদেশের পরের দ্বিতীয় স্থানটি দখল করেছে এ রাজ্য। এরইসঙ্গে, ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান না হওয়ার কারণ জিজ্ঞাসা করে মোদীজির জনসভার দিন হাজার হাজার ফ্লেক্স লাগানোর বার্তা দেন তৃণমূলের এই দাপুটে নেতা।  উল্লেখ্য,এদিনের তৃণমূলের জনসভা গুলোতে মানসবাবুর পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সভাপতি অজিত মাইতি,দীনেন রায়,জেলা তৃণমূল যুব সভাপতি রমা গিরির মতো তাবড় তাবড় ব্যক্তিত্বরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!