এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জল্পনা বাড়িয়ে কোনও বিধায়ক পঞ্চায়েত নির্বাচনে লড়তে চাইছেন না

জল্পনা বাড়িয়ে কোনও বিধায়ক পঞ্চায়েত নির্বাচনে লড়তে চাইছেন না



রাজ্যের আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে মনোনয়ন নিতে অনিচ্ছুক বেশ কিছু বিধায়ক। যদিও সার্বিকভাবে এই অনিচ্ছার কোনো কারণ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। কারণ গত বছর অবধি সাংবিধানিক নিয়ম অনুসারে কোনো বিধায়ক পুরসভার ভোটে জিতে পুর প্রতিনিধি হলে তিনি একই সাথে বিধায়ক ও পুর প্রতিনিধি পদের অধিকারী হতে পারেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনের ক্ষেত্রে নিয়মটা একটু আলাদা ছিলো। এক্ষেত্রে জেলা পরিষদ বা বিধায়ক কোনো একটিই পদের স্বীকৃতি বৈধ ছিলো। কিন্তু বহু দলীয় কর্মী ও বিধায়কদের আবেদন ও অনুরোধে ২০১৭ সালে রাজ্য সরকারের পঞ্চায়েত দপ্তর একটি সংশোধনী বিল আনে বিধানসভায়। বিলটি পাশও হয়। এই বিষয়ে রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বললেন, ”বিধানসভায় বিল পাস হয়েছে। রাজ্যপাল সম্মতি দিয়েছেন। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে তা কার্যকর হচ্ছে। কোনও বিধায়ক এই নির্বাচনে প্রার্থী হতে চাইলে, তিনি দাঁড়াতে পারবেন।” এদিকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বিধানসভা আসন বিশিষ্ট জেলা উত্তর ২৪ পরগনার জেলার তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বললেন, “এই জেলায় কোনও বিধায়ক পঞ্চায়েতে দাঁড়াবেন, আপাতত এরকম সম্ভাবনা নেই।” অন্যদিকে বামফ্রন্টের পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী বললেন, “যদি বিধায়ককে পঞ্চায়েতে প্রার্থী করার প্রয়োজন হয়, তাহলে দাঁড়াবেন। এখনও পর্যন্ত এ নিয়ে কোনও সম্ভাবনা নেই।” একই ভঙ্গিতে কংগ্রেস বিধায়ক অসিত মিত্র বললেন, “এখনও পর্যন্ত কংগ্রেসের কোনও বিধায়ক পঞ্চায়েতে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করেননি।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!