এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী! বাড়ছে জল্পনা!

শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী! বাড়ছে জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – 23 জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিনকে কেন্দ্র করে বিতর্ক কিছুতেই থামছে না। “জয় শ্রীরাম” স্লোগান ওঠাতে রীতিমতো বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করতে শুরু করেছেন তৃণমূলের সর্বস্তরের নেতা নেত্রীরা। আর এবার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে অনুষ্ঠান হওয়ার পর যেভাবে সেখানকার পরিবেশ নোংরা করা হয়েছে, তা নিয়ে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হলেন যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ তথা বিশিষ্ট অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। জানা গেছে, এদিন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে এই ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট সাংসদ।

স্বভাবতই কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলেও, কেন সেখানকার পরিবেশ এখনও পর্যন্ত নোংরা রয়েছে! তা নিয়ে তৃণমূল সাংসদের এই প্রশ্নে যে বিজেপি যথেষ্ট চাপে পড়ল, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে ঠিক কি লিখেছেন যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী? বিশিষ্ট এই অভিনেত্রী লেখেন, “ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে খাবার নিয়ে ঢোকা যায় না বলেই আমি জানি। তাহলে নেতাজির জন্ম জয়ন্তী অনুষ্ঠানের পর কেন হেরিটেজ ভবনটি দায়িত্ব নিয়ে পরিষ্কার করা হল না! শুধুমাত্র আপনাদের জন্যই কি নিয়ম ভাঙা যায়!”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বলা বাহুল্য, এবার নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর 125 তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছিল। সেই মত নেতাজির জন্ম জয়ন্তীর দিন সেখানে মহাসমারোহে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পালন করা হয়। এমনিতেই প্রথম থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মঞ্চে বক্তব্য রাখতে উঠলে “জয় শ্রীরাম” স্লোগানকে কেন্দ্র করে তৈরি হয় বিতর্ক। আর অনুষ্ঠান হয়ে যাওয়ার পরেও কেন ভিক্টোরিয়া চত্বর পরিষ্কার করা হল না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন তৃণমূল সাংসদ।

পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, বিজেপি “জয় শ্রীরাম” স্লোগানকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের চাপে এমনিতেই চাপে রয়েছে। তার মধ্যে গোদের ওপর বিষফোঁড়া হিসেবে ভিক্টোরিয়া চত্বর পরিষ্কার না করা নিয়ে মিমি চক্রবর্তীর এই ধরনের মন্তব্য বিজেপিকে অনেকটাই চাপে ফেলে দেবে। সামনে নির্বাচন। তার আগে ভিক্টোরিয়ার মত জায়গাকে পরিষ্কার করা নিয়ে যেভাবে তৃণমূল সাংসদ বিজেপিতে নাম না করে আক্রমণ করলেন, তাতে কেন্দ্রীয় সরকার যে যথেষ্ট বেকায়দায়, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এখন মিমি চক্রবর্তীর এই ধরনের মন্তব্যের পর কেন্দ্রের পক্ষ থেকে ভিক্টোরিয়া চত্বর পরিষ্কার করতে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয় কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!