এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > মহিলাদের স্বনির্ভর করতে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত মমতা-সরকারের, পর্যটন শিল্পে নতুন দিশা

মহিলাদের স্বনির্ভর করতে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত মমতা-সরকারের, পর্যটন শিল্পে নতুন দিশা



মহিলাদের স্বনির্ভর করতে নয়া উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের সাহায্যে রাজ্য সরকার কর্মহীন মহিলাদের বিনামূল্যে গাড়ি চালানোর প্রশিক্ষণ দিয়ে সার্কিট ট্যুরিজম বিকাশের উদ্যোগ নিতে চলছে। সব কিছু ঠিক থাকলে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ওই জেলার দীঘা, মন্দারমণির মতো পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে মহিলারা গাড়ি চালিয়ে পর্যটকদের ঘোড়াবেন। শুধু তাই নয়, প্রশিক্ষণ শেষে মহিলাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়ার পাশাপাশি রাজ্য সরকারের স্বামী বিবেকানন্দ স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্পে গাড়ি কেনার জন্য স্বল্পসুদে ব্যাঙ্কঋণের ব্যবস্থাও করবে জেলা প্রশাসন।

প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে ‘পিঙ্ক ক্যাব’ বা গোলাপি ট্যাক্সি। এছাড়াও মহিলাদের নিরাপত্তা এবং সুরক্ষার বিষয়ে নজর রেখে তাঁদের ক্যারাটে ও কুংফুর প্রশিক্ষণ দেওয়ার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে। রাজ্য সরকারের নতুন এই প্রকল্প সম্পর্কে অতিরিক্ত জেলাশাসক(ট্রেজারি) প্রশান্ত অধিকারী বলেন, ‘জেলাশাসকের মস্তিকপ্রসূত ‘পিঙ্ক ক্যাব’ নামের নতুন এই প্রকল্পের মাধ্যমে মহিলারা স্বনির্ভর হওয়ার পাশাপাশি পর্যটকদের অল্প খরচে জেলার বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র ভ্রমণের সুযোগ থাকছে। এতে কর্মসংস্থানও হবে।’ উল্লেখ্য এই জেলায় বহু ঐতিহাসিক স্থান এবং পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে। তাই বহু পর্যটকের সমাগম হয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

যাতায়াতের প্রয়োজনে তাদের গাড়ি ভাড়া করতেও লাগে। সেই কারণে ‘পিঙ্ক ক্যাব’কে অস্ত্র করে জেলা প্রশাসন পর্যটকদের জন্য পরিবহণের সুবন্দোবস্ত করা সহ জেলার মহিলাদের স্বনির্ভর করার ক্ষেত্রে এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করল। প্রসঙ্গতঃ, প্রথম পর্যায়ের সিদ্ধান্তে স্থির হয়েছে, জেলার আগ্রহী মহিলাদের এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এজন্য জেলাশাসক, মহকুমাশাসক কিংবা বিডিও অফিস থেকে ফর্ম সংগ্রহ করে আগামী ১০ আগস্টের মধ্যে সংশ্লিষ্ট অফিসে জমা দিতে হবে। প্রথম দফায় কাঁথি ও তমলুক মহকুমায় দুটি পৃথক ক্লাসে মোট ৬০ জন মহিলাকে গাড়ি চালানোর প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। একমাস প্রশিক্ষণের পর তাঁদের লাইসেন্স দেওয়া হবে। এরপরে যখন তাঁরা নিজেদের গাড়ি কিনতে আগ্রহী হবেন তখন সরকারী প্রকল্পের মাধ্যমে লোনের ব্যবস্থা করা হবে। লোনের টাকার ৩০ শতাংশ সরকার ভর্তুকি হিসেবে দেবে। বাকি টাকা স্বল্প সুদে অনেক কিস্তিতে পরিশোধ করার সুযোগ থাকছে।

জানা গিয়েছে, যেসব মহিলা গাড়ি কিনবেন, তাঁদের গোলাপি রঙের পোশাক দেওয়া হবে। একইসঙ্গে গাড়ির সামনের দিকেও গোলাপি রং করা থাকবে। এমনকি বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র যাওয়ার ভাড়াও নির্দিষ্ট থাকবে। এছাড়াও এই ‘পিঙ্ক ক্যাবে’ পর্যটন কেন্দ্রের বিবরণ সহ বুকলেট এবং পর্যটন কেন্দ্রের বিবরণ বর্ণিত অডিও সিডিও থাকবে। যার মাধ্যমে গাড়িতে সফররত পর্যটকেরা তাঁদের গন্তব্য স্থানের বিষয়ে আগাম ওয়াকিবহাল থাকতে পারবেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!