এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > সংসদ মানস ভুঁইয়াকে খুনের হুমকি দিয়ে শ্রীঘরে যুবক, কারণ নিয়ে তদন্তে পুলিশ

সংসদ মানস ভুঁইয়াকে খুনের হুমকি দিয়ে শ্রীঘরে যুবক, কারণ নিয়ে তদন্তে পুলিশ



কার্তিক গুহ , ঝাড়গ্রাম :- এবার সাংসদ মানস ভুঁইয়াকে তার মোবাইল ফোনে খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল। ঘটনায় চাঞ্চল্য জেলা জুড়ে। ঘটনায় এক যুবক কে গ্রেফতার করেছে সবং থানার পুলিশ।জানা যায় রবিবার রাত ৮ টা ৫২ ও ৮ টা ৫৩ মিনিট নাগাদ সাংসদ মানস ভুঁইয়ার মোবাইল নাম্বারে ৮৬৯৫৭৮৭৬৭৮ নং থেকে দুবার ফোন আসে। ফোন করে অশ্রাব্য গালিগালাজ করার পাশাপাশি সাংসদ কে খুনেরও হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ঘটনার পরে সবং থানা ও জেলা পুলিশ সুপারকে ফোনে পুরো বিষয়টি জানান মানস বাবু।

পাশাপাশি ঘটনা নিয়ে সবং থানায় রবিবার রাতেই অভিযোগ দায়ের করেন সবং ব্লকের যুব সভাপতি আবু কালাম বক্স। যেখানে তাদের প্রিয়া সাংসদের জীবনহানির আশংকা করার পাশাপাশি দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়। তিনি বলেন, “আমাদের সাংসদ সবং এর উন্নয়নের পাশাপাশি নানান অসামাজিক কাজকর্মের প্রতিবাদ বারবার করেছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পাশাপাশি বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছে, চোলাই মদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে। তাই যাদের তাতে সমস্যা হয়েছে তারাই এই ঘটনা ঘটিয়েছে।” এর পিছনে বড় কোন মাথা আছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তবে সেই বড় মাথাটি কে? তবে কি দলেরই কারোর দিকে আঙুল তুলছেন তিনি?

সেই প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিলেও ইঙ্গিত সবং এরই যে কোন এক নেতার দিকে তা পরিস্কার। ঘটনার তদন্তে নেমে মঙ্গলবার ভোরে সবং থানার পুলিশ ভবেশ মাহাত নামের এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে বলে জানা যায়। ধৃতের বাড়ি সবং এর বিডিও অফিসের পিছনে বলে স্থানীয় সুত্রে খবর।

ধৃতকে আজ তোলা হচ্ছে মেদিনীপুর জেলা ও দায়রা আদালতে। এ বিষয়ে সাংসদের বক্তব্য, “আমি রাজনীতিতে আজ নতুন আসিনি। আর ভয় দেখানো, ধমকানো, খুনের হুমকিও এই প্রথম পাচ্ছি এমন না। আমি এগুলোকে আগেও ভয় পায় নি, ভবিষ্যতেও পাব না।”

এ বিষয়ে তৃণ্মুলের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, “আইন আইনের পথে চলবে। এই ঘটণা মেনে নেওয়া যায় না। দোষীকে পুলিশ ধরেছে। এর জন্য ধন্যবাদ। পুলিশ তদন্ত করে দেখুক আর কেউ জড়িত কিনা।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!