এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > মমতার সঙ্গে বৈঠকে ডাক পেলেন শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ, ব্রাত্য প্রাক্তন মন্ত্রী! জল্পনা শুরু তৃণমূলেই

মমতার সঙ্গে বৈঠকে ডাক পেলেন শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ, ব্রাত্য প্রাক্তন মন্ত্রী! জল্পনা শুরু তৃণমূলেই



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  গতকাল শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভার্চুয়াল বৈঠকে যোগদানের ডাক পেয়েছিলেন মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল সভাধিপতি মোশারফ হোসেন মন্ডল। প্রসঙ্গত, মোশারফ হোসেন মন্ডল মুর্শিদাবাদে শুভেন্দু অধিকারীর ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত। শুভেন্দু অধিকারী যখন থেকে দলের প্রতি বিরাগ পোষণ করছেন, সে সময় থেকে তিনি নিজেকে বারবার শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামী বলে পরিচয় দিয়েছেন। শুভেন্দু অধিকারীকে তিনি নিজের রাজনৈতিক গুরু বলে সম্বোধন করেছেন। গতকাল শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রীর ভার্চুয়াল বৈঠকে যোগ দেওয়ার পরেই তাঁর ভোলবদল ঘটল। বৈঠক শেষে তিনি জানালেন যে, মুখ্যমন্ত্রী (দিদি) তাঁকে যা নির্দেশ দিয়েছেন, তা তিনি অক্ষরে অক্ষরে পালন করবেন।

প্রসঙ্গত, মুর্শিদাবাদ জেলায় শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামী বলে বিশেষভাবে পরিচিত হলেন মোশারফ হোসেন মন্ডল বা মধু। যিনি কিছুদিন ধরেই বলছিলেন যে, শুভেন্দু অধিকারী (দাদা) যা বলবেন, সেটাই করবেন তিনি। কিন্তু আশ্চর্য রকম ভাবে, গতকাল জেলা তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকের ডাক পাওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তিনি কাজ করবেন বলে জানালেন। তৃণমূল সূত্রের খবর, গতকাল মোশারফ হোসেন ছাড়াও অন্যান্য শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামীদেরও এ বৈঠকে যোগদান করার সুযোগ দেওয়া হয় নি প্রথমে। পরে তাদের বৈঠক যোগ দেবার লিংক দেওয়া হয়। বস্তুত, শুভেন্দু অনুগামীদের দলে আটকে রাখার চেষ্টায় ছিল তৃণমূল।

আপনার মতামত জানান -

গতকালের বৈঠকে মুর্শিদাবাদ জেলা থেকে জেলা তৃণমূলের চারজন কো-অর্ডিনেটর, জেলা তৃণমূল সভাপতি, জেলার চেয়ারম্যান সহ প্রায় ১০০ জন নেতা বৈঠকে যোগদান করেছিলেন। প্রথমদিকে শুভেন্দু অধিকারীর অন্যান্য অনুগামীদের মতো মোশারফ হোসেন মন্ডলকে যোগদানের আমন্ত্রণ করা হয়নি, পরে অবশ্য তাদের বৈঠকে যোগদানের লিঙ্ক পাঠানো হয়েছিল। এ প্রসঙ্গে জেলার জনৈক তৃণমূল নেতা জানান, মোশাররফ হোসেন মন্ডল বা মধু ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের দলবদল রোধ করতেই তাদেরকে ডাকা হয়েছিল বৈঠকে। এই বৈঠক শেষে মোশারফ হোসেন মন্ডল জানালেন যে, তাকে যা দায়িত্ব দেওয়া হবে, সেটাই তিনি পালন করবেন।

তবে গতকাল শুক্রবারের ভার্চুয়াল বৈঠকে যোগদানের লিঙ্ক পাঠানো হয় নি বিজেপি থেকে সদ্য তৃণমূল আসা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী হুমায়ুন কবীরকে। তিনি জানিয়েছেন যে, তিনি কোন লিংক পাননি। অন্যদিকে বেলডাঙ্গার বিধায়ক রবিউল আলম, যিনি হুমায়ুন কবীরের তীব্র বিরোধী বলে পরিচিত আছেন। তাকে গতকালের বৈঠকে লিঙ্ক পাঠানো হয়েছিল। এ ঘটনায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের আভাশ পেয়েছিলেন অনেকে। তবে, এ বিষয়ে, মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল সভাপতি আবু তাহের খান জানিয়েছেন যে, শাসকদল তৃণমূলে কোন বিদ্রোহ, বিভেদ নেই। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষিত কর্মসূচি পালন করাই তৃণমূলের একমাত্র লক্ষ। এভাবেই মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকের লিংক পাঠিয়ে শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামীদের দলে ধরে রাখার বিশেষ পরিকল্পনা শাসকদল তৃণমূলের।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!