এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > মমতার চিন্তা বাড়ালেন এবার বিজেপি ফেরত বিপ্লব, মুখ্যমন্ত্রীকে দিলেন বড়সড় বার্তা

মমতার চিন্তা বাড়ালেন এবার বিজেপি ফেরত বিপ্লব, মুখ্যমন্ত্রীকে দিলেন বড়সড় বার্তা



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় শাসকদল তৃণমূলের সংগঠনের অবস্থা ভালো নয়। দলের সংগঠনকে শক্তিশালী করতে না পারলে, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভাল ফল আসবে না। এমন কথাই জানালেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন সভাপতি বিপ্লব মিত্র। গত বৃহস্পতিবার এ বিষয়টি তিনি জানালেন রাজ্যের জনৈক মন্ত্রীকে। প্রসঙ্গত, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলের নতুন কমিটি গঠনের পর থেকেই ব্লক কমিটিতে যাদের স্থান দেয়া হয়েছে তাদের প্রতি ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন তৃণমূল নেতা বিপ্লব মিত্র। শিলিগুড়িতে গিয়ে তিনি তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে জেলা কমিটি নিয়ে তাঁর ক্ষোভের প্রকাশ করেছিলেন। এবার তিনি দলের সাংগঠনিক দুর্বলতার কথা প্রকাশ করলেন।

প্রসঙ্গত, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় ৬ টি বিধানসভা আসন রয়েছে। বিজেপিতে চলে যাওয়ার পর, বিজেপি ছেড়ে আবার তৃণমূলে চলে আসা তৃণমূল নেতা বিপ্লব মিত্র জানিয়েছেন যে, দলের সংগঠনের অবস্থা ভালো নয়। দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে বিষয়টি জানিয়ে, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে তিনি সেই মন্ত্রীকে বিশেষ বার্তা দিলেন। গত বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দক্ষিণ দিনাজপুরে এসেছিলেন রাজ্যের এক মন্ত্রী। রাজ্যের সেই মন্ত্রী বিপ্লব বাবুর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে তাঁর বাড়ি গিয়েছিলেন। তাঁর সঙ্গে মন্ত্রীর দীর্ঘক্ষণ ধরে আলোচনা হয়েছিল। তিনি মন্ত্রীকে দলের অবস্থা সম্পর্কে সচেতন করে দিলেন।

তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে যে, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলের অবস্থা কেমন? সে বিষয়ে মন্ত্রীর সঙ্গে অনেকক্ষণ আলোচনা হয়েছিল তাঁর। সেসময় বিপ্লববাবু মন্ত্রীকে জানিয়ে দিয়েছেন যে, দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাতে তৃণমূল সংগঠন দুর্বল হয়ে পড়েছে। বিধানসভা কেন্দ্র গুলিতে দলের অবস্থা মোটেই ভালো নয়। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে দলকে জয়ের মুখ দেখাতে হলে যে শক্তিশালী দলীয় সংগঠন দরকার, সেই সংগঠন এখনো গড়ে ওঠেনি। মন্ত্রীর কাছে দেওয়া বিপ্লব মিত্রের এই রিপোর্ট দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -

অনেকেই মনে করছেন যে, জেলায় তৃণমূল দলের গোষ্ঠী কোন্দল আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। প্রাক্তন জেলা তৃণমূল সভাপতি বিপ্লব মিত্র জানালেন যে, রাজ্যের জনৈক মন্ত্রী তাঁর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে তাঁর বাড়িতে এসেছিলেন। অনেক বিষয় নিয়ে তাঁদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। জেলায় তৃণমূলের পরিস্থিতির বিষয়ে তিনি জানতে চেয়ে ছিলেন। তিনি যা মনে করেছেন, সেটাই মন্ত্রীকে জানিয়েছেন তিনি।

তবে দলের সংগঠনে বিষয়ে বিপ্লব মিত্রের বক্তব্য অস্বীকার করেছেন তৃণমূলের বর্তমান জেলা সভাপতি গৌতম দাস। এ প্রসঙ্গে গৌতম দাস জানিয়েছেন যে, বিপ্লববাবু যদি বলে থাকেন যে, দলের অবস্থা ভালো নয়। তবে ভুল বলেছেন তিনি। তিনি প্রশ্ন করেছেন যে, বিপ্লববাবু মতো সাংগঠনিক নেতা দলে আসার পরও যদি দলের অবস্থা ভালো না হয়, তাহলে তাঁকে দলে নিয়ে দলের কি লাভ হয়েছে?

তৃণমূল জেলা সভাপতি গৌতম দাস আরো জানালেন যে, রাজ্যের ওই মন্ত্রী জেলায় এসেছিলেন তাঁর ব্যক্তিগত কাজে। মন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে কথাও হয়েছে তাঁর। মন্ত্রী কার সঙ্গে দেখা করবেন? তা একান্তই তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়। তবে দলের সংগঠনের দুর্বলতার কথা প্রকাশ করে দিয়ে ও দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে বিষয়টি জানাতে বলে মুখ্যমন্ত্রী তথা দলের শীর্ষ নেতৃত্বের চিন্তা অনেকটাই বাড়িয়ে দিলেন বিজেপি থেকে তৃণমূল ফিরে আসা প্রাক্তন তৃণমূল সভাপতি বিপ্লব মিত্র। এমনটাই রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের দাবি।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!