এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > মমতার পর অভিষেকই কি প্রধান মুখ? শোভনের কথায় বাড়ল জল্পনা!

মমতার পর অভিষেকই কি প্রধান মুখ? শোভনের কথায় বাড়ল জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –   মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর দলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড বলা হয় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। একদিকে তিনি যেমন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো, ঠিক তেমনই দলের যুব সংগঠনের সর্বভারতীয় সভাপতি। এক্ষেত্রে দলের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের যে একটা বড় ভূমিকা রয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। যদিও বা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারেবারে বলেছেন, তার কাছে বাড়তি কোনো গুরুত্ব পান না অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু দলের নীতিনির্ধারণের জায়গায় যে অভিষেকবাবু রয়েছে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত সকলে।

2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে দলকে সাফল্য পাইয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি যে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের একটা বড় ভূমিকা রয়েছে, তা অস্বীকার করতে পারেন না কেউই। আর এই পরিস্থিতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবর্তমানে দল এবং সরকারের মুখ্য ভূমিকায় থাকতে পারেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলে নানা মহলে গুঞ্জন তৈরি হয়েছে। আর এই গুঞ্জন আজ থেকে নয়, যেদিন থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্য রাজনীতিতে এবং তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ স্থানে উত্থান হয়েছে, সেদিন থেকেই এই গুঞ্জন তৈরি হতে শুরু করেছে। আর এই পরিস্থিতিতে এবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করে জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এবারের নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও, নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়ে পরাজিত হতে হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কিন্তু তারপরেও মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন তিনি। সংবিধানের নিয়ম অনুযায়ী, আগামী 6 মাসের মধ্যে তাকে কোনো একটি আসন থেকে জয়লাভ করতে হবে। আর এই পরিস্থিতিতে এবারের বিধানসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর ঘরের কেন্দ্র ভবানীপুর থেকে লড়াই করা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় তার বিধায়ক পদে ইস্তফা দিয়েছেন।

তাকে অন্য কোনো একটি বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। আর ইস্তফা দেওয়ার পর শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় পরিষ্কার ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই কেন্দ্রে লড়াই করবেন। তার জন্য তিনি সেখানকার বিধায়ক পদে ইস্তফা দিয়েছেন। আর এই পরিস্থিতিতে জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। তবে দিনকে দিন দলের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পৌঁছে যাচ্ছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সেদিক থেকে ধীরে ধীরে কি তিনি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দাবিদার তৈরি হচ্ছেন! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর কি তিনিই দলের প্রধান মুখ? এদিন এই প্রসঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দিয়েছেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। এদিন তিনি বলেন, “এখন এরকম কোনো সম্ভাবনা নেই। তবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পরিণত রাজনীতিবিদ হয়ে উঠছেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ভীষণ বুদ্ধিমান।”

বিশ্লেষকরা বলছেন, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের এই কথার মধ্যে দিয়ে পরিষ্কার হয়ে গেল, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে যথেষ্ট পজেটিভ তৃণমূলের সকলস্তরের নেতা নেত্রীরা। শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের মত বর্ষিয়ান নেতা নিজের মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় পরিণত রাজনীতিবিদ। অর্থাৎ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলে উত্থান হওয়ার পর তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো বলে বাড়তি সুযোগ পান বলে অভিযোগ করেছিলেন একাংশ।

এমনকি তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়ার শুভেন্দু অধিকারীর মুখে প্রায়ই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে কটাক্ষ শোনা গিয়েছিল। আর এই পরিস্থিতিতে 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল তৃতীয়বার জয়লাভ করার পেছনে যে সেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনবদ্য ভূমিকা রয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর এবার সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবর্তমানে দলের এবং সরকারের মুখ কি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, তা নিয়ে প্রশ্ন ক্রমশ মাথাচাড়া দিতে শুরু করেছে।

আর সেই পরিস্থিতিতে গোটা বিষয়ে সঠিকভাবে উত্তর না দিলেও, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে পরিষ্কার যে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় দলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পৌঁছে যাচ্ছেন। আগামী দিনে তিনি যদি মুখ্যমন্ত্রী মুখ হন, তাহলে আশ্চর্য হওয়ার যে কিছু নেই, সেই ব্যাপারে কার্যত একমত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!