এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > মমতার সভায় শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ বিধায়করা, শুভেন্দুর নাম নিলেন না নেত্রী!

মমতার সভায় শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ বিধায়করা, শুভেন্দুর নাম নিলেন না নেত্রী!



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – পূর্ব মেদিনীপুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আসলে তার সব সময়কার সফরসঙ্গী থাকতে দেখা যেত শুভেন্দু অধিকারীকে। শুধু তাই নয়, পূর্ব মেদিনীপুর সহ গোটা জঙ্গলমহলের কোনো জায়গা থেকে শুরু করে মালদহ, মুর্শিদাবাদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গেলে তার সফরসঙ্গী হতে দেখা যেত শুভেন্দু অধিকারীকে। কিন্তু সেই শুভেন্দুবাবুর সঙ্গে এখন দলের দূরত্ব ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। মন্ত্রীপদ ছাড়ার পর তিনি দল ত্যাগ করবেন বলে দাবি করতে শুরু করেছেন একাংশ।

আর এই পরিস্থিতিতে মেদিনীপুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা করতে আসলেও, সেখানে অনুপস্থিত ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। শুধু তাই নয়, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তৃণমূল সভাপতি তথা শুভেন্দু অধিকারীর পিতা শিশির অধিকারীকেও এই সভায় উপস্থিত হতে দেখা যায়নি। এছাড়াও তৃণমূল সাংসদ শুভেন্দু অধিকারীর ভাই দিব্যেন্দু অধিকারীও এই সভায় উপস্থিত হননি।

কিন্তু অধিকারী পরিবারের কেউ সেই সভায় উপস্থিত না হলেও, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মঞ্চে উঠে অন্তত একবারের জন্য শুভেন্দু অধিকারীর নাম নেবেন বলে মনে করেছিলেন সকলে। তবে সেই শুভেন্দু অধিকারীর নাম উচ্চারণ না করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কার্যত বুঝিয়ে দিলেন, তিনি কারও উপর ভরসা করেন না। জানা গেছে, এদিন শুভেন্দু অধিকারী মঞ্চে উপস্থিত না হলেও, তার ঘনিষ্ঠ বিধায়করা সকলেই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

ফিরোজা বিবি থেকে শুরু করে রনজিত মন্ডল, সংগ্রাম দোলইয়ের মত বিধায়কদের মঞ্চে উপস্থিত হতে দেখা গেছে। এছাড়াও শুভেন্দু অধিকারীর বিরোধী গোষ্টীর নেতা তথা রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরিকেও উপস্থিত থাকতে দেখা গেছে এদিনের সভায়। যেখানে প্রথমেই অখিল গিরিকে ডাকার পর তারপর অন্যান্য সমস্ত বিধায়ককে নিজের কাছে ডেকে নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর তার পরেই তিনি বলেন, “আপনারা সবাই আন্দোলনের মধ্যে থেকে উঠেছেন। মাথা উঁচু করে থাকবেন। ভয়ের কিছু নেই। বিজেপিকে ভয় পাচ্ছেন কেন? ওরা জেলার হুমকি দেবে। কেউ ভয় পাবেন না।” তবে যে মেদিনীপুরে শুভেন্দু অধিকারীর একচ্ছত্র আধিপত্য রয়েছে বলে শোনা যায়, সেই মেদিনীপুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গেলেন, অথচ শুভেন্দু অধিকারীর নাম পর্যন্ত নিলেন না!

এখন তা নিয়ে তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। অনেকে বলছেন, এখনও পর্যন্ত শুভেন্দু অধিকারী দলত্যাগ করেননি। তাই তার অনুগত বিধায়করা সেভাবে নেত্রীর সভায় অনুপস্থিত থেকে দলের চক্ষুশূল হতে চাইছেন না। তাই তারা সকলেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সভায় উপস্থিত থেকে দলনেত্রীর প্রতি আনুগত্য পোষন করার চেষ্টা করলেন।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে খেজুরির তৃণমূল বিধায়ক রনজিত মন্ডল বলেন, “আমি যে দলের বিধায়ক, সেই দলের সর্বোচ্চ নেত্রীর সভা। তিনি ডেকেছেন, আমাকে তো আসতেই হবে।” অন্যদিকে এই ব্যাপারে ফিরোজা বিবি বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেখানে, আমিও সেখানে আছি এবং থাকব।” অর্থাৎ সকলেই দলনেত্রীর প্রতি আনুগত্য পোষণ করে প্রমাণ করার চেষ্টা করলেন, শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে যতই জল্পনা তীব্র হোক না কেন, তারা দলের পাশেই আছেন।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কার্যত এদিন মেদিনীপুরের সভা থেকে মাস্টারস্ট্রোক দিলেন। তিনি একদিকে যেমন বোঝানোর চেষ্টা করলেন যে, শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে যাই হোক না কেন, দলের সকলেই ঐক্যবদ্ধ। পাশাপাশি দলের বিধায়কদের সকলের পাশে থাকার কথা জানিয়ে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকেও বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন। তিনি বোঝানোর চেষ্টা করলেন যে, তৃণমূলকে ভাঙ্গা অত সহজ নয়।

কিন্তু নেত্রীর সামনে সকলে তার প্রতি আনুগত্য পোষণ করার কথা বললেও, তলায় তলায় অনেকেই শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে শুরু করেছেন বলে দাবি করছেন একাংশ। যার ফলে কার্যত ঘোরালো হয়ে উঠছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রাজনীতি। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!