এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মমতার বাড়িতেও কি ফুটতে চলেছে পদ্ম! কার্তিকের কথায় বাড়ল জল্পনা!

মমতার বাড়িতেও কি ফুটতে চলেছে পদ্ম! কার্তিকের কথায় বাড়ল জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – কিছুদিন আগেই শুভেন্দু অধিকারী হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, এবার হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটে ঢুকেও তিনি পদ্ম ফোটাবেন। অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতেও যে পদ্ম ফোটাবেন তিনি, তা রীতিমতো চ্যালেঞ্জ করে জানিয়ে দিয়েছিলেন সদ্য তৃণমূল ত্যাগী শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু শুভেন্দুবাবুর এই বক্তব্যকে হাসির ছলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। তবে এবার তৃণমূলের চিন্তা বাড়িয়ে বিবেক মেলায় বিস্ফোরক মন্তব্য করে রীতিমতো জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়। যেখানে তার একটি মন্তব্যকে কেন্দ্র করে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা রাজ্য জুড়ে।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার দক্ষিণ কলকাতার হরিশ পার্কে বিবেকানন্দের জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে একটি বিবেক মেলার আয়োজন করা হয়। আর সেই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা যায় তাকে। কার্তিকবাবু বলেন, “মুখে দেশের দশের কথা বলব, আর সুবিধা দেব নিজের পরিবারকে, এটাই এখন ভারতীয় রাজনীতি।”

স্বাভাবিকভাবেই পরিবারতন্ত্রের কথা বলে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কেই কি বোঝাতে চাইলেন, এখন তা নিয়ে তৈরি হয়েছে জল্পনা। তাহলে কি আগামী দিনে তিনি বিজেপিতে যোগদান করছেন! এদিন এই প্রসঙ্গে জল্পনাকে আরও বাড়িয়ে দিয়ে কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আগামী দিনে কি হবে তা কেউ বলতে পারে না। কালকে কি করব, আমি নিজেও তা জানি না।” স্বাভাবিকভাবেই তার এই বক্তব্যে জল্পনা আরও বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। তাহলে কি অবশেষে এবার তৃণমূল নেত্রীর বাড়িতেও ফুটে যেতে চলেছে পদ্ম!


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তৃণমূলের কোনো নেতা-নেত্রীকে যদি জিজ্ঞেস করা হয় যে, আপনারা কি বিজেপিতে যোগদান করছেন! সাথে সাথে তারা তা নস্যাৎ করে দেন। এক্ষেত্রে কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই প্রশ্ন করা হলেও জল্পনা জিইয়ে রাখতে দেখা গেল তাকে। স্বাভাবিক ভাবেই তার এই মন্তব্য আগামী দিনে দলবদলের গুঞ্জনকে বাড়িয়ে দিল বলেই দাবি করছেন একাংশ।

আর যদি সত্যি সত্যিই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগদান করার মত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন, তাহলে শুভেন্দু অধিকারীর কথা যে বাস্তব হতে চলেছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিজের পরিবারেই যদি কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় এভাবে পদ্ম ফুটে দেন, তাহলে তা যে তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে সবথেকে বড় অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা‌। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!