এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > মমতাকে সরাসরি হারানোর চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর, নন্দীগ্রাম নিয়ে বাড়ছে পারদ!

মমতাকে সরাসরি হারানোর চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর, নন্দীগ্রাম নিয়ে বাড়ছে পারদ!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – এককালে নন্দীগ্রাম ছিল পরিবর্তনের আন্দোলনের অন্যতম আঁতুড়ঘর। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে সেখানে বিগত বাম সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন হলেও স্থানীয় স্তরে সেই আন্দোলনকে অনেকটাই এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন বর্তমান বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তারপর তৃণমূলকে নন্দীগ্রামে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। রাজ্যে পরিবর্তনের সরকার আসার পেছনে যেমন অনেকগুলো ঘটনা রয়েছে, ঠিক তেমনই অন্যতম অবদান রয়েছে এই নন্দীগ্রামের।

স্বাভাবিক ভাবেই রাজ্য রাজনীতিতে আলোড়ন ফেলে দেওয়া নন্দীগ্রামের ভূমিপুত্র হিসেবে পরিচিত শুভেন্দু অধিকারীর কদর বেড়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর মন্ত্রী থেকে শুরু করে দলের শীর্ষ পদে চলে আসেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু সেই শুভেন্দুবাবু গত বছরের ডিসেম্বর মাসে অমিত শাহের হাত ধরে যোগদান করেন ভারতীয় জনতা পার্টিতে। এখন তার প্রধান লক্ষ্য তৃণমূল কংগ্রেসকে পরাজিত করা। আর সেই লক্ষ্যে অটল থেকেই কাজ করে চলেছেন তিনি।

ইতিমধ্যেই নির্বাচনের দামামা বেজে গিয়েছে। শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার পর তৃণমূলের চাপ কিছুটা হলেও বেড়েছে। যার কারণে কিছুদিন আগেই নন্দীগ্রামে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছিলেন, এবার তিনি এখানে প্রার্থী হবেন। যার পরে তাকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ করে হাফ লক্ষ ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি হারাবেন বলে জানিয়ে দেন শুভেন্দু অধিকারী।

আর নির্বাচনের দামামা যখন বেজে গিয়েছে, যখন প্রত্যেকে প্রহর গুনছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে যদি এখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী হন, তাহলে বিজেপির পক্ষ থেকে কাকে প্রার্থী করা হবে! ঠিক তখনই সরাসরি তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নন্দীগ্রামে হারানোর চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিকেলে খড়গপুর 2 ব্লকের চক গোপীনাথপুর এলাকায় বিজেপির পক্ষ থেকে একটি জনসভার আয়োজন করা হয়। আর সেখানেই প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা কিছুদিন আগেই বিজেপিতে যোগদান করা শুভেন্দু অধিকারী। আর সেই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নন্দীগ্রামে পরাজিত করার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন তিনি। শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “আমি নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হারাব। আপনারা নিশ্চিন্তে থাকুন। আমি হারাব। আমাকে দল প্রার্থী করলে সরাসরি হারাব। অন্য কাউকে প্রার্থী করলেও পদ্মফুল ফোটানোর দায়িত্ব আমার।”

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অর্থাৎ নন্দীগ্রামের ভূমিপুত্র হিসেবে পরিচিত শুভেন্দু অধিকারী যদি বিজেপি টিকিটে নন্দীগ্রামে নাও দাঁড়ান, তাহলেও যে এই আসন বিজেপির হয়ে যেতাম তার কাছে অন্যতম লক্ষ্য, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কেননা যদি এই আসন শুভেন্দু অধিকারী জেতাতে না পারেন, তাহলে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার কার্যত প্রশ্নের মুখে পড়ে যাবে। তাই তাকে দল প্রার্থী করুক বা না করুক, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনি নন্দীগ্রামে পরাজিত করতে যে জান-প্রাণ লাগিয়ে দেবেন, তা শুভেন্দু অধিকারীর এদিনের সভার বক্তব্য থেকেই কার্যত স্পষ্ট বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

একাংশ বলতে শুরু করেছেন, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে অত্যন্ত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে। তবে সব থেকে বেশি নজরকাড়া কেন্দ্র হয়ে দাঁড়িয়েছে নন্দীগ্রাম। তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন নেতা এবং রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু অধিকারী এই নন্দীগ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের প্রাক্তন বিধায়ক। স্বাভাবিকভাবেই তার শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এই কেন্দ্রে এবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী হবেন বলে খবর রয়েছে। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামের সভা থেকে সেই কথা বলার পরেই তাকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে শুরু করেছিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

বর্তমানে প্রতিটি রাজনৈতিক দল তাদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবার জন্য দফায় দফায় আলোচনা করতে তৎপর। খুব তাড়াতাড়ি তৃণমূল, বিজেপি সহ অন্যান্য দলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হবে বলে খবর রয়েছে। আর এই পরিস্থিতিতে নন্দীগ্রামের বিজেপির পক্ষ থেকে যাকেই প্রার্থী করা হোক না কেন, তার দায়িত্ব যে সেই প্রার্থীকে জেতানো এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরাজিত করা তা বুঝিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু নন্দীগ্রাম নিজের দলের দখলে রাখতে এবং বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে পরাজিত করতে শুভেন্দু অধিকারী কতটা সচেষ্ট হন এবং নিজের কথা কতটা রাখতে পারেন, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!