এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজধানীতে মমতা পা রাখার আগেই মহাবৈঠক অভিষেকের, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে বাড়ছে জল্পনা!

রাজধানীতে মমতা পা রাখার আগেই মহাবৈঠক অভিষেকের, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে বাড়ছে জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – আজ তৃণমূলের একুশে জুলাইয়ৈর শহীদ দিবসের কর্মসূচি শেষ করে রাতেই দিল্লিতে পাড়ি দেবেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী 26 তারিখে দিল্লি যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তার আগে দিল্লির মাটিতে রাজনৈতিক ক্ষেত্র প্রস্তুত রাখতে এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুবিধা করে দিতেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই দিল্লি সফর বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে দিল্লিতে গিয়ে বিন্দুমাত্র সময় নষ্ট করতে চান না তৃণমূলের বর্তমান সেকেন্ড-ইন-কমান্ড। এক্ষেত্রে উভয়পক্ষের সাংসদদের সঙ্গে বৈঠক করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসার আগে তৈরি করা হতে পারে রননীতি। অর্থাৎ তৃণমূল নেত্রীর এবারের দিল্লি সফর রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবারের সফরে সাংগঠনিক বিষয়ে যেমন গুরুত্ব দেবেন, ঠিক তেমনই বিজেপিকে সরানো যে তাদের একমাত্র লক্ষ্য, সেই বিষয়টিও তুলে ধরবেন বলেই মনে করা হচ্ছে। তাই রাজধানীর বুকে নিজেদের বিস্তার ঘটাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই দিল্লি সফর করছেন বলে দাবি একাংশের। তবে তা যাতে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে ওঠে, তার জন্য আগেভাগেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজধানীতে পা রাখছেন। তবে শুধু দিল্লি যাওয়াই নয়, এক্ষেত্রে দলের অনুগত সৈনিকের মতো নেত্রীকে আরও বেশি সুবিধা পাইয়ে দিতে লোকসভা এবং রাজ্যসভার দলীয় সাংসদদের সঙ্গে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক ঘিরে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা ক্রমশ মাথাচাড়া দিতে শুরু করেছে।

 

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

সূত্রের খবর, আগামী বৃহস্পতিবার এই বৈঠক হতে চলেছে। যেখানে রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়ের বাড়িতে আসতে বলা হয়েছে দলের সমস্ত সাংসদদের। আর সেই বৈঠকেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী দিনের রণনীতি সম্পর্কে সকলকে অবহিত করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। মূলত, জাতীয় স্তরে বিস্তার ঘটানো এখন প্রধান লক্ষ্য তৃণমূল কংগ্রেসের। তাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসার আগে দলের উভয়পক্ষের সাংসদদের নিয়ে বৈঠক করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বার্তা সকলের কাছে তুলে ধরতে চান তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বলেই মনে করছেন একাংশ।

 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি থেকে শুরু পেগাসাস ইস্যুতে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রকে চেপে ধরেছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। এক্ষেত্রে সংসদে বড় ভূমিকা পালন করতে দেখা যাচ্ছে তৃণমূল সাংসদের। সংসদের ভেতরে এবং বাইরে বিজেপির বিরুদ্ধে সোচ্চার হচ্ছেন তারা। আর এই পরিস্থিতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছিল। তবে নেত্রীর সফরের আগে দলের সেকেন্ড ইন কমান্ড হিসেবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সফর করে দলের সাংসদদের নিয়ে বৈঠকে বড় কোনো রণনীতি তৈরি করতে পারেন বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!