এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কি বললেন মুখ্যমন্ত্রী,দেখে নিন একনজরে :-

কি বললেন মুখ্যমন্ত্রী,দেখে নিন একনজরে :-



ঝাড়গ্রামের বেলপাহাড়ির জনসভা থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বেলপাহাড়ির স্কুলমাঠে সভা করেন তিনি। এদিন বেলপাহাড়ি ফুটবল ময়দানে সরকারি সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, জনসংযোগ যাত্রার সূচনা করেছিলাম বেলপাহাড়িতে। মোটরবাইকে করে ঘুরেছিলাম অনেক গ্রাম। দেখেছিলাম, গাছের মূল খেয়ে থাকেন স্থানীয়রা। নিজের লেখা উপলব্ধি বইতে জানিয়েছিলাম সেকথা।পাশাপাশি তিনি বলেন ,পিএনবি কেলেঙ্কারির তদন্ত করতে হবে। তদন্ত না করা পর্যন্ত আমরা ছাড়ব না। তাঁর প্রশ্ন, কে ১১,৫০০ কোটি টাকা নিয়ে গেল? কে ঋণ দিল?। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ব্যাঙ্কে আপনার টাকা নিরাপদ নয়। তাঁর দাবি, এফআরডিআই বিল প্রত্যাহার করতে হবে কেন্দ্রকে। বিল ফেরাতে পরপর দু’বার চিঠি দিয়েছি। দ্বিতীয় চিঠিতে আরও কড়া করে বিল ফেরানোর দাবি করেছি।

এছাড়াও তিনি যাযা বলেছেন একনজরে: –

১.পাহাড়, জঙ্গলের দিকে কেউ দেখত না। আমরাই প্রথম উন্নয়ন শুরু করি
মানুষ দু’টাকা কেজি দরে চাল পাচ্ছে,জঙ্গলমহলে স্কুল, কলেজ, পানীয় জল, রাস্তাঘাট নির্মাণ করা হয়েছে।

২.ঝাড়গ্রামে ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হবে। যাতে ছাত্রছাত্রীদের বাইরে যেতে না হয়।

৩. ৩টি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল, ৫ টি ITI তৈরি হবে ঝাড়গ্রামে।

৪.কৃষক ভাতা বাড়িয়ে হাজার টাকা করা হয়েছে। ঝাড়গ্রামে নতুন কিষাণ মান্ডি তৈরি করা হবে।

৫.আমরা লোকশিল্পীদের সাহায্য করি ও লোকশিল্পীদের নতুন করে কাজ দিচ্ছে এই সরকার।

৬.৭০ লাখ সাইকেল বিলির লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।

৭.সুবর্ণরেখা নদীর ওপর ব্রিজ তৈরি হয়েছে।

৮.রামেশ্বর মন্দিরের প্রথম পর্যায়ের কাজ শেষ হয়েছে।

৯.অলচিকি ভাষাকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে,ও অলচিকির অভিধান তৈরি হচ্ছে।

১০.জঙ্গলমহল কাপে জয়ীদের চাকরির ব্যবস্থা করা হবে।

১১. কুর্মিদের জন্য কালচারাল সেন্টার তৈরি করা হচ্ছে।

১২. জঙ্গলমহলের জন্য নানা উন্নয়ন প্রকল্প ও ৬ বছরে আদিবাসীদের জন্য বহু কাজ করেছি।

১৩. দিল্লির সরকার বড়বড় কথা বলে। গ্রামের মানুষ ব্যাঙ্কে টাকা রাখছে,গরিবদের টাকা কেটে নিচ্ছে ব্যাঙ্ক।FRDI বিল আনছে কেন্দ্রীয় সরকার। আমি বিরোধিতা করে চিঠি দিয়েছি,নোটবাতিল, GST সর্বনাশ করেছে।ICDS বন্ধ করে দিচ্ছিল, আমরা চালাচ্ছি।

১৪. ভোটের আগে নানা প্ররোচনা দেবে,প্ররোচনায় পা দেবেন না
পঞ্চায়েত হাতছাড়া হতে দেবেন না। এর মাধ্যমেই কাজ হচ্ছে।
আজ ২০ হাজার মানুষের হাতে সরকারি পরিষেবা তুলে দেওয়া হয়েছে।
এখন ৯০শতাংশ মানুষ কোনও না কোনও সরকারি পরিষেবা পান।

১৫.তপশিলিজাতি, উপজাতির মানুষ যাতে দ্রুত কাস্ট সার্টিফিকেট পান তার ব্যবস্থা করেছি আমরা।

১৬. জঙ্গলমহলের মানুষ যত ভাল থাকবে, আমি গর্ব করে বলতে পারবো এটা আমার স্বপ্নের জঙ্গলমহল।

১৭. আমি চাই ঝাড়গ্রামের মেয়েরা সারা বাংলায়, বিশ্বে মাথা তুলে দাঁড়াক। মেয়েরা আমাদের বোঝা নয়, ওরা আমাদের সম্পদ। সরকার মেয়ের বিয়ের জন্য ২৫ হাজার টাকা দেবে রূপশ্রী প্রকল্পে।

১৮.সবাইকে সরকার সাহায্য করে। কেন্দ্রীয় সরকার রেশনে চিনি, কেরোসিন কমিয়ে দিচ্ছে। যখনই আমাকে ডাকবেন আমি আপনাদের কাছে আসব। কখনও আমাদের ভুল বুঝবেন না। মা-মাটি-মানুষের সরকার যতদিন থাকবে আপনাদের কোনও সমস্যা হবে না। এটা আপনাদের সরকার।

১৯. আশাকর্মীদের কাজ বন্ধ করে দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার, আমরা টাকা দিয়ে প্রকল্প চালাচ্ছি।

২০.আশীর্বাদ করুন যেন মানুষের জন্য কাজ করে যেতে পারি। বাম আমলের ঋণ শোধ করতে হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!