এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আন্দোলন ধর্মঘটে সামিল হলেই বন্ধ হবে মাসিক ভাতা হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

আন্দোলন ধর্মঘটে সামিল হলেই বন্ধ হবে মাসিক ভাতা হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর



আজ বুধবার দেশের সমস্ত প্রকল্প ভিত্তিক কর্মীরা ধর্মঘট ডেকেছেন । আন্দোলনকারীদের দাবি,দীর্ঘদিন ধরে অবহেলা ,বঞ্চনা ও ন্যায্য দাবি নিয়ে এই ধর্মঘট সম্পূর্ণরূপে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে।দেশের প্রতি রাজ্যের মতো পশ্চিমবঙ্গেও এই ধর্মঘট পালন করবেন তাঁরা। রাজ্যে অন্তত সাত লক্ষ প্রকল্প কর্মীর ডাকা এই ধর্মঘটের বিরুদ্ধে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হুঁশিয়ারি দেন ।কোনোভাবেই রাজ্যে ধর্মঘট বা ডেপুটেশন কর্মসূচি পালন করা যাবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন তিনি। পাশাপাশি কর্মীদের ধর্মঘটে সামিল হলে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ হিসেবে মাসিক ভাতা বন্ধ করার হুমকিও দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর এই বার্তার পরেই ট্রেড ইউনিয়নগুলির তরফেও তীব্র প্রতিক্রিয়া উঠে এসেছে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে।

উল্লেখ্য, সোমবার শালবনির এক অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে প্রকল্পভিত্তিক কর্মীদের এই ধর্মঘটের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দেন মুখ্যমন্ত্রী। এরপরেই চড়াও হয় ধর্মঘট আহ্বানকারী ১০টি কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নের রাজ্য নেতৃত্ব। তাঁরা এদিন সাংবাদিক বৈঠক ডেকে জানান,তাদের এই আন্দোলন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ।সেক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতা স্পষ্টভাবেই প্রমান করে যে তিনি আদতে মোদি সরকারের পাহারাদার। প্রসঙ্গত , এই ধর্মঘটে মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতার পর তৃনমূলের ট্রেড ইউনিয়নগুলি সামিল থাকছে না। তবে সিপিএম,সিপিআই,আরএসপি,ফরওয়ার্ড ব্লক,এসইউসি,সিপিআইএমএল(লিবারেশন) ,কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন সহ ,আইসিডিএস,আশা,মিড ডে মিল প্রভৃতি বিভিন্ন ধরণের কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত অন্তত এক কোটি স্বেচ্ছাসেবক তথা কর্মীরা এই ধর্মঘটে শামিল হবেন বলেই জানা গেছে। যদিও বিজেপি তথা আরএসএস ঘনিষ্ট বিএমএস এই ধর্মঘটকে সমর্থন করছে না।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!