এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দলীয় বৈঠকে দলবদল নিয়ে হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কি বার্তা দিলেন তিনি

দলীয় বৈঠকে দলবদল নিয়ে হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কি বার্তা দিলেন তিনি



লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 42 এ 42 এর স্লোগান দিলেও নিজের টার্গেট পূরণ করতে পারেননি। উল্টে বিজেপি বাংলা থেকে 18 টি আসন নিজেদের দখলে নিয়ে 22 টি আসন পাওয়া তৃণমূলের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলতে শুরু করে।

আর এই পরিস্থিতিতে দলের খারাপ ফলাফলের পর দলের নেতাকর্মীদের একাংশ যে তলায় তলায় বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন, সেই ব্যাপারে উষ্মা প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছিল স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

এমনকি ফলাফল প্রকাশের পর বিভিন্ন জনসভা এবং সাংবাদিক বৈঠক থেকে কেউ যদি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যেতে চান, তাহলে তিনি এখনই চলে যান বলে মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছিল তাকে। আর এই পরিস্থিতিতে ফের দলের বিশ্বাসঘাতকদের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিতে দেখা গেল তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে প্রতি শুক্রবার করে বিভিন্ন জেলাকে নিয়ে সাংগঠনিক বৈঠক করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তারই অঙ্গ হিসেবে শুক্রবার তৃণমূল ভবনে বাঁকুড়া এবং ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূল নেতৃত্বদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন তিনি। আর সেখানেই যারা তৃণমূল ছেড়ে অন্য কোনো দলে যোগ দিতে চান, তারা এখনই চলে যান বলে সাফ জানিয়ে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে তিনি বলেন, “যদি তলায় তলায় এখনও কেউ বিজেপির হয়ে কাজ করেন, তারা দল থেকে বেরিয়ে যান। বিশ্বাসঘাতকদের তৃণমূলে কোনো জায়গা নেই। এখনও সময় রয়েছে। সবাই যদি দলের নির্দেশ মেনে চলতে পারেন তাহলে ভালো। আর তা না হলে এক্ষুণি দলত্যাগ করুন।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞদের মতে লোকসভা ভোটে হারের পর রীতিমতো আতঙ্কিত হয়ে উঠেছেন তৃণমূল নেত্রী।কেননা বিভিন্ন সময়ে তৃণমূলের প্রাক্তন সৈনিক মুকুল রায় তৃণমূলের সকলেই তার সাথে যোগাযোগ রাখছে বলে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের ঘুম কেড়ে নিয়েছেন।

এমনকি তৃনমূলের অনেক হেভিওয়েট নেতা, বিধায়কদের বিজেপিতে যোগদান করিয়ে ঘাসফুল শিবিরের সর্বোচ্চ নেত্রীকে মাস্টারস্ট্রোকও দিয়েছেন বঙ্গের এই হেভিওয়েট বিজেপি নেতা। আর এই পরিস্থিতিতে দলের ভিতর থেকে কেউ যাতে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ না রাখে, তার জন্যই এদিনের বৈঠকে সকলকে সতর্ক করে দিতে দেখা গেল তৃণমূল নেত্রীকে।

এদিকে দলের নেতাকর্মীদের উপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এহেন বক্তব্য প্রসঙ্গে এদিন তাকে পাল্টা খোঁচা দিয়েছে গেরুয়া শিবির। বিজেপির দাবি, “আসলে নির্বাচনে হারের পর দলের আর কাউকে বিশ্বাস করতে পারছেন না তৃণমূল নেত্রী। আর তাই সকলকে বিশ্বাসঘাতক বলে আখ্যা দিচ্ছেন তিনি। ভবিষ্যতে তৃণমূলে পিসি আর ভাইপো ছাড়া আর কেউ থাকবে না।”

তবে তৃণমূলের পাল্টা দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিকই বলেছেন। কারণ দুষ্টু গরুর থেকে শূন্য গোয়াল ঢের ভালো। কিন্তু তৃণমূল নেত্রী বিশ্বাসঘাতকদের দল থেকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিলেও মুখে তৃণমূল আর কাজে বিজেপি করা নেতা-নেত্রীরা শাসক দলের সর্বোচ্চ নেত্রীর অস্বস্তিকে আরও কত দিন টিকিয়ে রাখে, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!