এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মমতার ‘শয়তানি রাজত্ত্ব’ – মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক সব অভিযোগ মহম্মদ সেলিমের

মমতার ‘শয়তানি রাজত্ত্ব’ – মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক সব অভিযোগ মহম্মদ সেলিমের



পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাসপুরে একটি নির্বাচনী জনসভা তে অংশগ্রহন করেন সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিম। সেখান থেকে রাজ্যের শাসকদলকে একহাত নেন তিনি। তিনি সরাসরি অভিযোগ করেন যে রাজ্যে যে অশান্তি চলছে তা রুখতে কোনো ব্যাবস্থা নিচ্ছেন না মুখ্যমন্ত্রী। এদিন তিনি বলেন যে, রাজ্যে যে গত ২৮টি দাঙ্গা হয়েছে সেখানে একটি দাঙ্গারও তদন্ত করেননি মমতা ব্যানার্জি। একটিও অভিযোগ নেননি। একটি তদন্ত কমিশনও গড়েননি। ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেছিলেন যে তিনি যদি ক্ষমতায় আসেন তবে সাঁইবাড়ি ও মারিচঝাঁপি হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করবে। পাশাপাশি দোষীদের শাস্তিও দেবেন। এদিন সেই নিয়েও মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করতে ছাড়লেন না সেলিমবাবু।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তিনি বলেন, “সাঁইবাড়ির কমিশন হবে, মারিচঝাঁপির কমিশন হবে বলেছিলেন। কিন্তু, যখন এখানে দাঙ্গায় লোক মরছে আর গোটা রাজ্যের মানুষকে ভাগ করা হচ্ছে, তখন মমতা ব্যানার্জি বা তৃণমূল কংগ্রেস কোনও কমিশন করবেন না। কোনও দোষী খুঁজবেন না। কেউ শাস্তি পাবে না।” তিনি প্রশ্ন তোলেন যে কিভাবে আটকাবেন সন্ত্রাস মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?, ” তিনি দাঙ্গাবাজদের আটকাবেন বক্তৃতা করে? মাথায় একটা হিজাব পরে, রমজানে ইফতার পার্টি করে?” এদিন বর্তমান রাজ্য সরকার পরিচালিত রাজত্ব-কে “শয়তানি রাজত্ব” বলেও দাবি করেন। তিনি ইসলাম ধর্মগ্রন্থে-র প্রসঙ্গ টেনে বলেন, “ইসলামী ধর্মগ্রন্থেও লেখা আছে, অনেক সময় শয়তান বুজরুকি করার জন্য আর মানুষকে বোকা বানানোর জন্য ফেরেস্তার বেশ ধরে আসে। মানুষকে বোকা বানিয়ে ঠগবাজি করে। আমাদের রাজ্যেও সেরকমই শয়তানি রাজত্ব হয়েছে। আবহাওয়া এমন তৈরি করা হয়েছে যাতে মানুষ ঠকে যায়।” এদিন দলীয় কর্মীদেরকেও একজোট হয়ে লড়াই করার বার্তা দেন তিনি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!