এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মমতা মায়ের মত, দেশের জনতাই তাঁকে প্রধানমন্ত্রী চাইছেন – মানুষকে বোঝানোর দায়িত্ব দলীয় নেতাদের দিল তৃণমূল

মমতা মায়ের মত, দেশের জনতাই তাঁকে প্রধানমন্ত্রী চাইছেন – মানুষকে বোঝানোর দায়িত্ব দলীয় নেতাদের দিল তৃণমূল



আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হিসাবে দশরথ তিরকির নাম ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই খুশির জোয়ারে ভাসছে পাহাড় থেকে সমতল। উন্নয়নকে হাতিয়ার করে ভোটের প্রচারও শুরু হয়েছে দশরথবাবুর জন্যে। গতকাল দশরথ তিরকিকে জেতার জন্যে নতুন শ্লোগান বেঁধে দিলেন দলের জেলা পর্যবেক্ষক অরূপ বিশ্বাস। বললেন,’চাইছে দেশের জনতা,প্রধানমন্ত্রী মমতা।’ শ্লোগানের পাশাপাশি আলিপুরদুয়ার মিউনিসিপালিটি হলে আয়োজিত কর্মীসভায় দলীয় কর্মী সমর্থকদের প্রত্যেককে নিজের নিজের বুথের দায়িত্ব দেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

এছাড়া রাজ্যসরকারের ৪৯ টি জনস্বার্থমুখী প্রকল্পকে প্রচারের হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করার পরামর্শও দেন। এছাড়া বিজেপি টাকা দিয়ে ভোট কেনা ব্যবস্থা করছে কিনা সেদিকেও নজর দেওয়ার কথা বলেন। এককথায়, কোন রণকৌশল অবলম্বন করলে ভোটের প্রচারে তৃণমূল প্রতিপক্ষদের ছাপিয়ে যেতে পারবে সেই স্ট্র্যাটাজিই ঠিক করতে সমস্ত দলীয় শাখা সংগঠনের কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেন দলীয় জেলা পর্যবেক্ষক অরূপ বাবু।

অরুপ বাবুর আগে সভায় বক্তব্য রাখেন দলের জেলা সভাপতি মোহন শর্মা, জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী সহ অন্যান্যরা। গতকালের সভায় দলের বিধায়ক,জেলা পরিষদ,পঞ্চায়েত সমিতি ও গ্রাম পঞ্চায়েত সহ সর্বস্তরের দলীয় জন প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

সভায় অরূপ বাবু আরো বলেন,লোকসভা ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রোখাই কংগ্রেস,বিজেপি এবং বামপন্থীদের একমাত্র লক্ষ্য। তাই বিরোধীদের আঘাত থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রক্ষা করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। দলনেত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন,’মমতা মায়ের মতো। আমরা তার সন্তানসম। আমাদের আওয়াজ তুলতে হবে ‘চাইছে দেশের জনতা, প্রধানমন্ত্রী মমতা।’ এই আহ্বান করেই প্রত্যেকে কর্মীদের নিজের নিজের বুথের দায়িত্ব নিতে উদ্ধুদ্ধ করেন অরূপ বাবু।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তাঁর বক্তব্য,’১১ এপ্রিল ভোট। তার জন্য সবাইকে দায়িত্ব ভাগ করে নিতে হবে। প্রচারে একটা বাড়িও যেন বাদ না পড়ে। আলিপুরদুয়ারে দুই লক্ষ ভোটে আমাদের জিততে হবে। প্রচারে মানুষের সামনে রাজ্য সরকারের ৪৯টি জনমুখী প্রকল্পের কথা তুলে ধরতে হবে।’ লোকসভা ভোটে বিজেপি ভোট কিনতে পারে এই আশঙ্কা করে অরূপ বাবু দলীয় কর্মীদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন,বিজেপি ভোটে টাকা ছড়াতে পারে। সেজন্যেই ভোটের সময় আরো বেশি সতর্ক হওয়া জরুরি।

ভোটের সময় অসম থেকে আরএসএসের লোকজন আনতে পারে বলেও বুথকর্মীদের সতর্ক করেন তিনি। এরপর বিজেপি সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করে বলেন,ভাড়াটে সৈন্য দিয়ে যুদ্ধে কোনওদিন জেতা যায় না। চার বছর অতিক্রম হয়ে গেলেও বিজেপির আচ্ছে দিন আজও আসেনি। আলিপুরদুয়ারে সাতটি চা বাগান অধিগ্রহণ করে খোলার প্রতিশ্রুতি দিলেও এখনো সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করেনি বিজেপি সরকার। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সবসময় তাঁর কথা রাখেন। ক্ষমতায় আসার পর প্রতিশ্রুতি মতো সাতটি চা বাগান খুলেছেন নেত্রী।

গতকালের সভায় ভোটের দেওয়াল লিখন এবং ভোটার তালিকা স্ক্রুটিনি না হওয়া নিয়ে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন অরূে বাবু। জানান,আলিপুরদুয়ারে আসার সময় দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে কোনো দেওয়াল লিখন এখনো দেখেননি তিনি। এখনো ভোটার তালিকারও স্ক্রুটিনি হয়নি। ভোটার তালিকা আসলে প্রশ্নপত্র। সেই প্রশ্নপত্রের স্ক্রুটিনি না হলে চলবে কী করে বলে বিষ্ময় প্রকাশ করেন তিনি। এসব বলার পর উপস্থিত কর্মীদের তিনি অবিলম্বে ভোটার তালিকার স্ক্রুটিনি ও দেওয়াল লিখনের নির্দেশ দেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!