এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > একরাশ আশা নিয়ে মমতা ফিরিয়ে এনেছেন হেভিওয়েটকে! পাল্টা অভিযোগের ঝড় তুলতে তৈরি বিরোধী গোষ্ঠী!

একরাশ আশা নিয়ে মমতা ফিরিয়ে এনেছেন হেভিওয়েটকে! পাল্টা অভিযোগের ঝড় তুলতে তৈরি বিরোধী গোষ্ঠী!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –পাহাড়ের রাজনৈতিক সমীকরণ বর্তমানে কিছুটা হলেও বদল হতে শুরু করেছে। একসময় বিমল গুরুং তৃণমূলের ঘনিষ্ঠ থাকলেও, ধীরে ধীরে তিনি বিজেপির দিকে চলে গিয়েছিলেন। যার ফলে পাহাড় অশান্ত হতে শুরু করেছিল। পরিস্থিতি সামলাতে এবং বিমল গুরুংকে চাপে রাখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মোর্চার বিনয় তামাংকে জিটিএর দায়িত্ব দেওয়া হয়। তারপর থেকে বেশ ভালোই চলছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই সেই বিমল গুরুং বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের হাত ধরার কথা জানিয়ে দেয়। স্বাভাবিকভাবেই সেই বিমলবাবুর বিরোধী গোষ্ঠীর নেতা হিসেবে পরিচিত বিনয় তামাং এবং তার অনুগামীরা এর ফলে অনেকটাই ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। অবশেষে সেই বিনয় তামাং গোষ্ঠীর ক্ষোভকে দমাতে ময়দানে নামল রাজ্য সরকার। জানা গেছে, মঙ্গলবার নবান্নে বিনয় তামাং এবং অনীত থাপাদের নিয়ে বৈঠকে বসবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

একাংশ বলছেন, গত কয়েকদিন ধরে পাহাড়ের যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে রাজ্য সরকার খুব একটা সন্তুষ্ট নয়। বর্তমানে একের পর এক মিছিল করতে দেখা যাচ্ছে বিনয় তামাং গোষ্ঠীর অনুগামীদের। যার ফলে পাহাড়ে রাজনৈতিক উত্তাপ ক্রমশ বেড়েই চলেছে। তাই এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বৈঠকে নতুন করে জল্পনা সৃষ্টি হল।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অনেকে বলছেন, বিমল গুরুং অনেক দিন পর প্রকাশ্যে এসে তৃণমূলকে সমর্থনের কথা জানিয়ে দেওয়ার পর বিনয় তামাংয়ের অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই সামনে চলে এসেছে। যার ফলে পেশি শক্তি প্রদর্শন করতে পারেন বিনয় তামাংয়ের অনুগামীরা এবং তার ফলে পাহাড়ের শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই বৈঠকের ডাক দেওয়া হল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিন এই প্রসঙ্গে মোর্চার কেন্দ্রীয় কমিটির মুখপাত্র কেশবরাজ পোখরেল বলেন, “পাহাড়ে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখাটা এখন সবার প্রাথমিক কর্তব্য নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের সভাপতি বিনয় তামাং এবং সাধারণ সম্পাদক অনীত থাপার বৈঠক মঙ্গলবার দুপুর তিনটের সময় অনুষ্ঠিত হবে।” এদিকে এই গোটা বিষয়ে পাল্টা ময়দানে নেমে পড়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “গুরুংয়ের বিরুদ্ধে তামাংকে লড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। আমরা জানি না পরিস্থিতি কোথায় যাবে।”

 

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, বর্তমানে রাজ্য সরকারকে সমন্বয় বজায় রাখতে হবে। সেদিক থেকে বিমল গুরুং সক্রিয় হতে শুরু করলে বিনয় তামাংয়ের গোষ্ঠী যে ক্ষুব্ধ হবেন, তা অত্যন্ত স্বাভাবিক ব্যাপার। তাই বিনয় তামাংয়ের গোষ্ঠী এখন নিজেদের অস্তিত্বের জানান দিতে নিত্যনতুন ভাবে পথে নামতে শুরু করেছে। যা নিঃসন্দেহে পাহাড়ের শান্তি বিঘ্নিত হওয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে আশঙ্কা করছেন একাংশ। তাই এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার দুপুর তিনটের সময় সেই বিনয় তামাং এবং অনীত থাপাদের সঙ্গে বৈঠক করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এই বৈঠকে আদৌ বরফ গলে কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!