এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > মালদা বিস্ফোরণকাণ্ড ঘিরে তরজায় তৃণমূল,বিজেপি

মালদা বিস্ফোরণকাণ্ড ঘিরে তরজায় তৃণমূল,বিজেপি



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দিন-দুপুরে মালদার সুজাপুরে তীব্র বিস্ফোরণ। ঘটনার তীব্রতায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিলো যে কারখানায় উপস্থিত 5 কর্মচারী বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গে ছিন্নভিন্ন হয়ে যান। পাশাপাশি আরও 5 জন কর্মচারী ব্যাপক ভাবে আহত হন। তাঁদের মালদা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা চলছে। অবস্থা তাঁদেরও আশঙ্কাজনক। কিন্তু এ দিনের ঘটনায় ইতিমধ্যেই রং লেগেছে রাজনীতির। গেরুয়া শিবির ইতিমধ্যেই বলতে শুরু করেছে, মালদা সুজাপুর এর ওই কারখানায় বোমা মজুত ছিল এবং সেখান থেকেই এই বিস্ফোরণ হয়েছে।

অন্যদিকে এই বিস্ফোরণের খবর পাওয়ার সাথে সাথেই রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম কলকাতা থেকে পৌঁছান মালদায় সরেজমিনে ঘটনা খতিয়ে দেখতে। তবে রাজ্য স্বরাষ্ট্র দপ্তর বিজেপির অভিযোগ এদিন রীতিমতো উড়িয়ে দিয়েছে। ওই কারখানায় কোন বোমা বা বেআইনি কোন সামগ্রী তৈরি হচ্ছিল না বলেই জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। অন্যদিকে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে টুইটারে বলা হয়েছে দায়িত্বজ্ঞানহীন ভাবে ভিযোগ করা হচ্ছে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। সুজাপুর এর ঘটনায় ইতিমধ্যে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টুইট করে লিখেছেন, বোমা তৈরীর কারখানাগুলি রাজ্যে বন্ধ করার জন্য।

একই সুরে সুর মিলিয়ে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষও এদিন জানিয়েছেন, রাজ্যে যখন-তখন বিস্ফোরণ হচ্ছে, বাংলা এখন বোমা, বন্দুকের কারখানা হয়ে গেছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। পাশাপাশি তিনি বলেছেন, একের পর এক বিস্ফোরণ হয়ে চলেছে রাজ্যে। উগ্রপন্থী ধরা পড়ছে রাজ্যে। কিন্তু কোনো কিছুই এই সরকার আটকাতে পারছেনা। রাজ্য বিজেপি সভাপতি এই ঘটনায় এনআইএ তদন্তের দাবি করেছেন বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে রাজ্য স্বরাষ্ট্র দপ্তর সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে এন আই এ তদন্ত যে নিষ্প্রয়োজন তা জানিয়েছে। এদিন স্বরাষ্ট্র দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, মালদার সুজাপুরে যে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা কারখানার উৎপাদন সংক্রান্ত সমস্যার জন্যই ঘটেছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা গিয়েছে প্লাস্টিক কারখানার ক্রাশার ফেটে গিয়ে এই বিস্ফোরণ হয়েছে। এর সঙ্গে বেআইনি বোমার কোনো সম্পর্ক নেই। অন্যদিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপার তদন্ত করে যাতে রাজ্যকে রিপোর্ট দেয় সে রকম নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এ প্রসঙ্গে মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন জানিয়েছেন, মালদার সুজাপুরে প্লাস্টিক কারখানায় প্রসেসিং মেশিনের বিস্ফোরণ হয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ইতিমধ্যে আহতদের হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে এবং নিহত ও আহতদের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

সূত্রের খবর, বিস্ফোরণে নিহতদের 2 লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ এবং আহতদের 50 হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। প্লাস্টিক কারখানায় বিস্ফোরণ কান্ড ঘিরে ইতিমধ্যেই জোরদার চাপানউতোর শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই চাপান-উতোর যে আরও বাড়বে সে ব্যাপারে নিঃসন্দেহ বিশেষজ্ঞরা। অন্যদিকে এই বিস্ফোরণকাণ্ড ঘিরে এলাকায় ছড়িয়েছে ব্যাপক উত্তেজনা। ব্যাপক পুলিশ বাহিনী এলাকায় পৌঁছেছে, চলছে তদন্ত। আপাতত এই বিস্ফোরণকাণ্ড রাজ্য রাজনীতিতে কতটা প্রভাব ফেলে, সেদিকে কড়া নজর রাখছে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!