এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > মালদার রাজনৈতিক পরিস্থিতি ‘আলাদা’, লোকসভা দখলে আগামী 10 তারিখ থেকেই কোমর বেঁধে আসরে শুভেন্দু অধিকারী

মালদার রাজনৈতিক পরিস্থিতি ‘আলাদা’, লোকসভা দখলে আগামী 10 তারিখ থেকেই কোমর বেঁধে আসরে শুভেন্দু অধিকারী



পঞ্চায়েতের আগে এ দায়িত্ব নিয়ে জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক হিসেবে মালদাকে কার্যত বিরোধী-শূন্য করে দিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। যত দিন এগিয়েছে, ততই যেন একদা কংগ্রেস গড় বলে পরিচিত মালদায় হাত শিবির আলগা হয়েছে। ফুটেছে ঘাসফুল।

এহেন একটা পরিস্থিতিতে সামনে লোকসভা নির্বাচন আর সেই লোকসভা নির্বাচনের আগে মালদায় যাতে দলের এই বিজয়রথ অব্যাহত থাকে সেই কারণে এখন থেকেই জেলা সম্মেলনের মধ্যে দিয়ে সেই লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি শুরু করে দিতে চাইছে মালদহ জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

সূত্রের খবর, আগামী 10 ডিসেম্বর মালদহের মোথাবাড়িতে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি সম্মেলন করবেন জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের পরিবহন ও পরিবেশ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। যেখানে জেলা নেতৃত্বদের পাশাপাশি জেলার প্রতিটি বুথ থেকে পাঁচজন করে দলীয় প্রতিনিধি উপস্থিত থাকবেন। কিন্তু এখন লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট যেখানে ঘোষনা করেনি নির্বাচন কমিশন, সেখানে এত তাড়াতাড়ি সেই লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি কেন শুরু করতে চাইছে শাসক দল?

তৃনমূল সূত্রের খবর, সাম্প্রতিক পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই জেলায় কংগ্রেস ভোট ভাঙিয়ে তৃণমূল এক নম্বরে থাকলেও এখানে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বিজেপি। আর তাই নিজেদের বিজয় হলেও সেখানে অস্বস্তি বেড়েছে তৃণমূলের। তাইতো লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই বিজেপির ভোট ব্যাঙ্ককে ভাঙতে এবার জেলা সম্মেলনের মধ্যে দিয়ে নিজেদের ঘর গোছাতে চায় শাসক দল।

প্রসঙ্গত, এই মালদাযর দুটি লোকসভা আসন বর্তমানে কংগ্রেসেরই দখলে‌ রয়েছে। তাই এবার জেলার এই দুটি লোকসভা আসনকে নিজেদের বাগে রাখতে মালদহকে পাখির চোখ করছে তৃণমূল কংগ্রেস। এদিন এই দলীয় সম্মেলন উপলক্ষে মালদহ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি দুলাল সরকার বলেন, “দলের শীর্ষনেত্রী ইতিমধ্যেই একাধিক কর্মসূচি ঘোষণা করে দিয়েছেন। জেলাস্তরে সেগুলো পালন করার পাশাপাশি মোথাবাড়িতে একটি দলীয় সম্মেলন করব। আর সেখানেই দলীয় পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী ভবিষ্যৎ রণনীতি সম্পর্কে আমাদের দিশা দেখাবেন।”

অন্যদিকে এই কর্মসূচি প্রসঙ্গে মালদহ জেলা তৃণমূলের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, “রাজনৈতিক কর্মসূচিকে সামনে রেখেই দলের অগ্রগতি হয়।পঞ্চায়েতের আগে আমরা যেমন বড় আকারের সম্মেলন করেছিলাম, ঠিক তেমনই অতীতের অভিজ্ঞতার নিরিখে জেলা পর্যবেক্ষকের নির্দেশে আমরা এবারও লোকসভার আগে একটি বড় সম্মেলন করব।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজনৈতিক মহলের মতে, লোকসভার আগে তৃণমূল কংগ্রেসের মালদা জেলার এই সম্মেলন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। জেলায় পঞ্চায়েতের সাফল্যের পর নেতাকর্মীরা যাতে নিজেদের উদ্যমতা হারিয়ে না ফেলেন, এবার তা ধরে রাখতেই এই রাজনৈতিক কর্মসূচির ভাবনা শাসকদলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!