এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মাঝেরহাট সেতু নিয়ে বিস্ফোরক মদন মিত্র, জানালেন অনেক কথা

মাঝেরহাট সেতু নিয়ে বিস্ফোরক মদন মিত্র, জানালেন অনেক কথা



সম্প্রতি মাঝেরহাট সেতু বিপর্যয় নিয়ে বিরোধীরা রাজ্যসরকারের সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন। এবার এ প্রসঙ্গেই সরব হতে দেখা গেল তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা মদন মিত্রকে। পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে বাইরে ও ভিতর থেকে ছুরির মারার চেষ্টা হচ্ছে। এমনটাই অভিযোগে জানালেন মদনবাবু।

দিন দুয়েক আগের কথা, মাঝেরহাট ঘটনায় অরূপ বিশ্বাস দাবী করেন,মির্জাফর শাসকদলের মধ্যেই আছে। এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে মদন মিত্র একটি সাংবাদ মাধ্যমের সাক্ষাৎকারে জানান, যারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নে সামিল না হয়ে তৃণমূলের সংগঠনে ফাটল ধরাতে চান তাঁরাই এধরনে মন্তব্য করবেন বলে জানান মদন বাবু। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পবিত্র স্পর্শের জন্যেই নাকি মাঝের হাটের বড় দুর্ঘটনা আটকে গিয়েছে বলেই দাবী করলেন মদনবাবু। দুর্ঘটনায় অনেক মানুষের মৃত্যু হতে পারতো কিন্তু কমের মধ্যে দিয়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত,নবান্নে বসেই অরূপ বিশ্বাস বলেছিলেন, কিছু দলীয় আধিকারিকরা দপ্তরে বসেই সরকারের ক্ষতি করছে। তাঁদের অবিলম্বে চিহ্নিত করে সিআইডি তদন্তের কথা জানিয়েছিলেন তিনি। তাঁর এধরনের বিতর্কিত মন্তব্যেরই পাল্টা দিলেন এদিন মদন মিত্র। বললেন,অরূপ বাবু এ ধরনের মন্তব্য কেন করেছেন এটা তাঁর জানা নেই। বললেন, ‘মিরজাফর শুধু দলের ভিতরে কেন সরকারের ভিতরেই থাকতে পারে।’

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজ্যে সম্প্রতি গনেশ পুজোর বাড়বাড়ন্ত নিয়ে তাকে প্রশ্নও করা হলে তিনি জানান, তৃণমূলের গনেশ পুজোর সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সঙ্গে কোনো রাজনৈতিক যোগসূত্র নেই। তাঁর বাড়িতেই প্রায় হাজার খানেক গনেশ মূর্তি রয়েছে বলে জানান তিনি। কিন্তু বিজেপির হাতে গনেশের দুধ খাওয়াটা অনেকটা কমিশন খাওয়ানোর মতো হয়ে গিয়েছে বলে জানান তিনি। গনেশ আবার নিজের জায়গায় ফিরেছে তাঁদের হাত ধরেই এমনটাই বক্তব্য তাঁর। এরপর তাকে প্রশ্ন করা হয় বিজেপির ভয়ে আতঙ্কগ্রস্থ হয়েই কি গনেশ পুজোয় মন দিয়েছেন শাসকদল? এর উত্তর দিতে সাফ কথায় তিনি জানান,’ভগবানের উইলে বিজেপি-র কোথাও নাম নেই। ওরা যে নিজেদের ভগবানের নমিনি বলেছে,সেটা ওদের প্রচার। তার কোনো ভিত্তি নেই। ‘অর্থাৎ এই গনেশ পুজো করার সঙ্গে কোনা রাজনৈতিক যোগসূত্র নেই বলেই জানালেন তিনি। বিজেপির সঙ্গে লড়াই রয়েছে লোকসভা ভোটের ময়দানে। মানুষ যেমন বনধের রাজনীতি মেনে নেয়নি,তেমনি বিজেপি-র এই সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতিকেও অস্বীকার করবে বলেও তাঁরা,এমনটাই বক্তব্য মদনবাবুর।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!